শীর্ষ শিরোনাম
Home » মৌলভীবাজার » মৌলভীবাজারে একজোট হয়ে প্রচারণায় বিএনপি

মৌলভীবাজারে একজোট হয়ে প্রচারণায় বিএনপি

danmমেৌলভীবাজার প্রতিনিধি: মৌলভীবাজার পৌরসভা নির্বাচন সামনে রেখে জেলা বিএনপির বিবদমান দুই পক্ষের নেতা-কর্মীরা সব ভুল-বোঝাবুঝির অবসান ঘটিয়ে দলের প্রার্থীর পক্ষে একজোট হয়ে কাজ করার কথা বলেছেন। গতকাল রবিবার থেকে তাঁরা দলীয় প্রার্থীকে নিয়ে একযোগে প্রচার চালাচ্ছেন।

বিএনপির প্রার্থী অলিউর রহমান বলেন, ‘দলে গ্রুপিং ছিল। এখন সবাই একসাথে কাজ করবেন। এখন আমার কাজে আর সমস্যা নেই।’

দলীয় সূত্র জানায়, গত বৃহস্পতিবার রাতে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির মহিলা-বিষয়ক সম্পাদক ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক খালেদা রব্বানীর জেলা শহরের বাসভবনে দুই পক্ষের সভা হয়। সেখানে ধানের শীষের প্রার্থীকে জয়ী করতে দলের দুটি অংশের প্রথম সারির নেতা-কর্মীরা বক্তব্য দেন।

সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বলেন, ‘শুধু মৌলভীবাজার পৌরসভা নয়। জেলার অন্য সব কটি পৌরসভাতেও আমরা দলের প্রার্থীর পক্ষে সবাই প্রচারণা চালাব।’

শনিবার রাতে শহরের সৈয়দ মুজতবা আলী সড়কের পশ্চিমবাজার এলাকায় অলিউর রহমানের নির্বাচনী কার্যালয়ে দুই পক্ষের নেতারা আবারও একত্র হন। গতকাল শহরের কুসুমবাগ, শমশেরনগর সড়ক, টিসি মার্কেটসহ বিভিন্ন এলাকায় সবাই মিলে প্রার্থীকে নিয়ে প্রচারণা চালান।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন থেকে জেলা বিএনপির সভাপতি এম নাসের রহমান ও সাধারণ সম্পাদক খালেদা রব্বানীর নেতৃত্বে দল দুই ভাগ হয়ে আছে। এবার পৌরসভার বর্তমান মেয়র ও খালেদা রব্বানীর নেতৃত্বাধীন অংশের নেতা ফয়জুল করিম প্রার্থী না হওয়ার ঘোষণা দেন। পরে দল থেকে পৌর কাউন্সিলর ও নাসের রহমানের নেতৃত্বাধীন অংশের নেতা অলিউর রহমানকে মনোনয়ন দেওয়া হয়। এ অবস্থায় বৃহস্পতিবার খালেদা রব্বানীর বাসায় দুই অংশের নেতা-কর্মীরা মিলিত হন। তাঁরা অলিউর রহমানের হাতে দলের প্রতীক ধানের শীষ তুলে দেন।

খালেদা রব্বানী বলেন, ‘আমরা তারারে (প্রার্থীসহ নাসের রহমানের নেতৃত্বাধীন অংশের নেতা-কর্মীকে) দাওয়াত দিয়েছিলাম। ম্যাডামের নির্দেশ আছে। আমরা সবাইকে বলেছি ধানের শীষের কাজ করতে। দলের প্রার্থীকে পাস করাতে ঝাঁপিয়ে পড়তে।’

সভায় উপস্থিত ছিলেন খালেদা রব্বানী ও তাঁর অংশের ফয়জুল করিম, মিজানুর রহমান, জুনেদ আহমদ, মোশাররফ হোসেন, এম নাসের রহমানের নেতৃত্বাধীন অংশের নেতা ও জেলা বিএনপির সাবেক সহসাধারণ সম্পাদক আবদুল ওয়ালী সিদ্দিকী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুল মুকিত এবং জেলার নেতা মো. ইউছুফ আলী প্রমুখ।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now