শীর্ষ শিরোনাম
Home » মিডিয়া » সংবাদ সম্মেলনে জৈন্তাপুরের বশির উদ্দীন: ‘বৈধ ভাবেই বড়জুরী বিল ইজারা নিয়েছি’

সংবাদ সম্মেলনে জৈন্তাপুরের বশির উদ্দীন: ‘বৈধ ভাবেই বড়জুরী বিল ইজারা নিয়েছি’

press con picসিলেটরিপাের্ট: যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট থেকে বৈধপ্রক্রিয়ায় বড়জুরী বিল ইজারা নিয়েছেন বলে দাবী করেছেন জৈন্তাপুর উপজেলার চাল্লাইন নিবাসী আলহাজ্ব আব্দুল হক (মেম্বার) এর ছেলে মো: বশির উদ্দীন। শনিবার (৯ জানুয়ারী) দুপুরে সিলেট প্রেসক্লাবে অনুষ্টিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি প্রতিপক্ষের মিথ্যা অপবাদের বিভিন্ন অভিযোগের জাবাব দেন।
সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বশির উদ্দীন বলেন, আমি একজন সাধারণ ব্যবসায়ী, দেশের প্রচলিত আইন এবং স্থানীয় গন্যমান্য মুরুব্বীদের প্রতি অত্যন্ত শ্রদ্ধাশীল। আমাদের এলাকার একটি বিল নিয়ে আমার উপর অহেতুক অপবাদ দিয়ে আমার বিরুদ্ধে সম্প্রতি সিলেট প্রেসক্লাবে আমার প্রতিপক্ষরা সংবাদ সম্মেলন করেছেন। যা গত ৫ ই জানুয়ারী ২০১৬ দৈনিক মানব জমিনের ১১ নং পৃষ্ঠায় ’’ছাতার খাইবাসীর আকুতি’’ শিরুনামে এবং ৬ জানুয়ারী ২০১৬ দৈনিক সিলেটের ডাক এ-৩ নং পৃষ্টায় জৈন্তাপুরে বিল দখল নিতে নিরীহ মানুষকে হয়রানীর অভিযোগ’’শিরুনামে প্রকাশিত হয়। আমার বিরুদ্ধে দরবস্ত ইউনিয়নের ছাতারখাই গ্রামবাসীর পক্ষ থেকে আব্দুল হেকিম বাবুল , মো: এবাদুর রহমান, আব্দুল করিম, আব্দুল মালিক,নুরুল হক গংরা বড়জুড়ি কাটাগাং বিলটি জালিয়াতির মাধ্যমে ভুয়া কাগজ তৈরী করে জোরপুর্বক ভোগদখলের পায়তারা করছি বলে মিথ্যা অভিযোগ তুলেছেন। প্রকৃত পক্ষে আমরা বৈধপন্থায় বিলটি লিজ নিয়েছি। আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার করে তারা হীনস্বাথ হাসিলের জন্যই মিথ্যা অপবাদ তুলেছেন। এমন কি স্থানীয় প্রশাসনের বিরুদ্ধে ও তারা অহেতুক অভিযোগ তুলেছেন। আমি আজকের সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এসব অপপ্রচারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। একই সাথে আমি আবারো ঘোষণা করছি যে, আমি একজন সাধারণ নাগরিক, দেশের আইন আদালতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল । সে কারনেই আমি কখনো প্রতিপক্ষের সাথে ঝগড়া বিবাদে জড়াতে রাজি নই। বিগত ২১/০২/২০১৪ ইং আমার ব্যবসায়িক পাটনার ও সহকর্মী বাহার উদ্দীন পাখি ছাতারখাই গ্রামবাসীর নিকট থেকে ৩১.০১০০০/(একত্রিশ লক্ষ একহাজার) টাকায় বড়জুরী বিল এক বছরের জন্য যথানিয়মে ইজারা গ্রহণ করেন। গ্রামবাসীর সহযোগিতায় বাহার উদ্দীন পাখি থেকে চুক্তিপত্রের মাধ্যমে আমিসহ আমার ব্যবসায়ীক পার্টনারগন লিজ গ্রহণ করি। এই অবস্থায় উক্তবিলে কাঠা ফেলে রক্ষনাবেক্ষনের সময় বিগত ২০/১১/২০১৪ ইং আব্দুল করিম গং বিলের পাহারা দারদের মারধরকরে জোর পুর্বক ভাবে প্রায় ১২ লক্ষ টাকার মাছ ধরে নিয়ে যায় । এমতাবস্থায় আমি অসহায় হয়ে আইনের আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়ে ২০/১১/২০১৪ ইং জৈন্তাপুর মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করি। থানার মামলা নং ১৭। জি, আর মামলা নং ২২৫/২০১৪ইং। তাছাড়া ১২/৬/ ২০১৪ ইং, ২৪/১২/২০১৪ ইং এবং ২২/১২/২০১৫ ইং আরেকটি মামলা দায়ের করতে বাধ্যহই। বিল দখল নিয়ে আমি বরাবরই স্থানীয় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান এবং স্থানীয় গন্যমান্য শালিশীব্যক্তি বর্গের সরনাপন্ন হয়েছি । সব শেষে অপারগ হয়ে আমি আইনের আশ্রয় নিয়ে মামলা দায়ের করেছি। বশির উদ্দীন আরো বলেন, প্রতিপক্ষ এবাদুর রহমান,আব্দুল করিমগংরা আমাকে প্রভাবশালী এবং সন্ত্রাসী হিসেবে চিহিৃত করার অপচেষ্টা চালিয়েছেন কিন্তু প্রকৃত পক্ষে দাঙ্গাবাজ,সন্ত্রাস কারা তা জৈন্তাপুর থানায় খবর নিলেই জানতে পারবেন। কারণ তারাই পুলিশের ওপর আক্রমন করেছিলো। তাদের আক্রমনে এ এস আই নবী হোসেন সহ আরো অনেকেই আহত হন। ২৬/০৪/২০১৫ তারিখে জৈন্তাপুর মডেল থানার এস আই স্বপন চন্দ্র সরকার স্বাক্ষরিত অভিযোগ পত্র দাখিল করেন। এই অভিযোগ পত্র পড়লেই আপনারা জানতে পারবেন প্রকৃত সন্ত্রাসী কারা। তিনি প্রতিপক্ষের কারনে অনেকটাই নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছেন। স্থানীয় প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, আলহাজ্ব রহমত উল্লাহ, সভাপতি বিল ব্যবসায়ী সমিতি জৈন্তাপুর, নুর উদ্দীন (মড়া) সাধারণ সম্পাদক দরবস্ত ইউপি আওয়ামীলীগ, বশীর উদ্দীন সাধারণ সম্পাদক বিল ব্যবসায়ী সমিতি জৈন্তাপুর, হাবিব আলী , সহসভাপতি বিল ব্যবসায়ী সমিতি জৈন্তাপুর, তাজ উদ্দীন –সহসভাপতি বিল ব্যাবসায়ী সমিতি জৈন্তাপুর, বাহাউদ্দীন বাহার, সহসাধারণ সম্পাদক বিল ব্যবসায়ী সমিতি জৈন্তাপুর, মাওলঅনা আব্দুস সুবহান কোষাধ্যক্ষ বিল ব্যবসায়ী সমিতি জৈন্তাপুর, রফিক আহমদ, সদস্য: বিল ব্যবসায়ী সমিতি জৈন্তাপুর, রহিম উদ্দীন,সদস্য বিল ব্যবসায়ী সমিতি জৈন্তাপুর, আবিদ আলী, সদস্য বিল ব্যবসায়ী সমিতি জৈন্তাপুর উপজেলা। #

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now