শীর্ষ শিরোনাম
Home » খেলাধুলা » শেওলা আন্তঃইউনিয়ন ফুটবল টুর্নামেন্টে মুক্তিযোদ্ধা ক্রীড়া চক্র চ্যাম্পিয়ন

শেওলা আন্তঃইউনিয়ন ফুটবল টুর্নামেন্টে মুক্তিযোদ্ধা ক্রীড়া চক্র চ্যাম্পিয়ন

troআমিন খান,সিলেট রিপোর্ট: শেওলা আন্তঃইউনিয়ন ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা শুক্রবার বিকেলে কাকরদিয়া পূর্ব মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে। খেলায় মুক্তিযোদ্ধা ক্রীড়া চক্র ২-১ গোলে স্টুডেন্ট ওয়েলফেয়ার সোসাইটিকে পরাজিত করে টুর্নামেন্ট চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে। টুর্নামেন্টে পৃষ্ঠপোষকতা করেন আজিজুর রহমান ও সেলিম আহমদ।
এলাকার প্রবীণ তারকা খেলোয়াড় বুরহান উদ্দিনের সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন শেওলা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সফল চেয়ারম্যান বিয়ানীবাজার আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি আলহাজ্ব শামছ উদ্দিন খান, বিশেষ অতিথি ছিলেন সাপ্তাহিক বিয়ানীবাজার বার্তা পত্রিকার সম্পাদক ছাদেক আহমদ আজাদ, শেওলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তারেক হোসেন খান, শেওলা ইউপি সদস্য ফখর উদ্দিন, উপজেলা যুবলীগ নেতা জাকারিয়া মাহমুদ।
প্রধান অতিথি শামছ উদ্দিন খান বলেন, যুব সমাজের মধ্যে ঐক্য ও নৈতিক মূল্যবোধ জাগ্রত করতে হবে। খেলাধুলার মাধ্যমে এসব করা সম্ভব। তিনি বলেন, ক্রীড়াক্ষেত্রে পৃষ্ঠপোষকদের অভাব নেই, উদ্যোক্তার অভাব। তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা লালন ও ধারণ করে যুব সমাজকে দেশগড়ার কাজে এগিয়ে যেতে হবে। তিনি পড়ালেখার পাশাপাশি তরুণ প্রজন্মকে সমাজসেবায় অবদান রাখার আহ্বান জানান।
বিশেষ অতিথি ছাদেক আহমদ আজাদ বলেন, বিয়ানীবাজারের অতীত ঐহিত্য রয়েছে। তা অব্যাহত রাখতে আমাদের প্রত্যেকেই কিছু না কিছু অর্জন করার চেষ্টা করতে হবে। যেমন শিক্ষামন্ত্রী নাহিদ, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর খান স্ব-স্ব ক্ষেত্রে সুনাম বয়ে এনেছেন। সাংবাদিক ছাদেক আজাদ টুর্নামেন্ট আয়োজক, পৃষ্ঠপোষক, খেলোয়াড় ও দর্শকদের শুভেচ্ছা জানান। পাশাপাশি তিনি সুস্থ দেহ গঠনে খেলাধুলার চর্চা অব্যাহত রাখার অনুরোধ করেন।
অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন আলতাফ হোসেন, সাহাব উদ্দিন, জামাল উদ্দিন, বদরুল ইসলাম, ছবুর আহমদ, আব্দুল হামিদ, বদরুল হক বদই, আলমাছ আহমদ, জাকির হোসেন।
টুর্নামেন্ট পরিচালনায় ছিলেন ইয়াহইয়া আহমদ, মোয়াজ্জিম হোসেন, সেলিম আহমদ, মকবুল হোসেন খান, অলিউর রহমান।
টুর্নামেন্টে ম্যান অব দ্যা সিরিজ আব্দুল্লাহ, ম্যান অব দ্যা ম্যাচ সেবুল এবং সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন অহিদ।
ফাইনাল খেলায় রেফারির দায়িত্ব পালন করেন লুৎফুর রহমান, সহকারি ছিলেন রেদওয়ান হোসেন রাজু ও জসিম উদ্দিন। ধারাভাষ্যকার ছিলেন মাছুম আহমদ, রেজা ও মুজিবুল হক।
খেলা শেষে প্রধান ও বিশেষ অতিথিবৃন্দ বিজয়ী ও বিজিত দলের মধ্যে চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ ট্রফি বিতরণ করেন।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now