শীর্ষ শিরোনাম
Home » মিডিয়া » ওজাসের ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে অনলাইন গণমাধ্যমের ভুমিকা’ র্শীর্ষক সেমিনার: : অনলাইন নিউজ পোর্টাল মানুষের চাহিদা পূরণে ভুমিকা রেখে যাচ্ছে—-জেলা প্রশাসক শহীদুল ইসলাম

ওজাসের ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে অনলাইন গণমাধ্যমের ভুমিকা’ র্শীর্ষক সেমিনার: : অনলাইন নিউজ পোর্টাল মানুষের চাহিদা পূরণে ভুমিকা রেখে যাচ্ছে—-জেলা প্রশাসক শহীদুল ইসলাম

সিলেট রিপোর্ট ::সিলেটের জেলা প্রশাসক মো: শহীদুল ইসলাম বলেছেন, অনলাইন নিউজ পোর্টাল মানুষের চাহিদা পূরণে ভুমিকা রেখেযাচ্ছে। এসব গণমাধ্যম এখন সময়ের চাহিদা। মানুষ ক্রমেই ইন্টারনেট র্নিভর হতে যাচ্ছে। একই সাথে অনলাইন সাংবাদিকতার গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রত্যেক জিনিষের দুটি দিক রয়েছে , তার একটি হলো ভাল অপরটি হলো মন্দ। সাংবাদিকতা একটি মহান পেশা তাই যারা অনলাইন সাংবাদিকতায় সম্পৃক্ত তাদের উচিত হলো দেশ ও জনগণের কল্যাণে ভাল দিক নিয়ে কাজ করা। সংবাদ প্রচারে বস্তুনিষ্টতার বিকল্প নেই। ইন্টারনেটের মাধ্যমে যেহেতু দ্রুত সংবাদ প্রচার হয় তাই এক্ষেত্রে তুলনা মুলক বেশী সচেতনতা অবলম্বন করতে হবে। ভাল সংবাদ দ্রুত প্রচারের কর্মরতদের প্রশিক্ষনের মাধ্যমে দক্ষতা অর্জন করতে হবে। এ ক্ষেত্রে সবধরনের সহযোগিতার আশ^াস দিয়ে জেলা প্রশাসক বলেন, সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনের সহায়ক হিসেবেই অনলাইন গণমাধ্যমের জন্য নীতিমালা প্রনয়ন করছে। ওজাসের নবনির্বাচিত কমিটিকে অভিনন্দন জানিয়ে জেলা প্রশাসক বলেন, এই সেক্টরটিকে ভয়াবহ না ভেবে সহজ হিসেবেই গ্রহণ করতে হবে। অনলাইন নিউজ পোর্টালের যৌক্তিকতা ও প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। সার্কিট হাউস ও ডিসির বাস ভবনকে ও ইন্টারনেট সংযুক্ত করাহয়েছে। আমি প্রতিদিন রাতে শুয়ে শুয়ে অনলাইন পত্রিকা গুলো ভিজিটকরে জেনেনিই কোথাও কোন ঘটনা ঘটেছে কি না।
বুধবার বিকেলে সিটি কর্পোরেশনের সম্মেলন কক্ষে  অনলাইন জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশন সিলেট (ওজাস)’র  উদ্যোগে ‘ ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে অনলাইন গণমাধ্যমের ভুমিকা র্শীর্ষক এক সেমিনার ও ওজাসের নতুন  কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, দৈনিক সিলেটের ডাক’র ব্যবস্থাপনা সম্পাদক দেওয়ান তৌফিক মজিদ লায়েক, সিনিয়রসাংবাদিক ও বালাগঞ্জ ডিগ্রীকলেজের অধ্যক্ষ লিয়াকত শাহ ফরিদী, সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের আহবায়ক কবি মুহিত চৌধুরী, কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের সহসাধারণ সম্পাদক গল্পকার সেলিম আউয়াল। ওজাস’র সভাপতি আবদুল মুহিত দিদারের  সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক  মারুফ হাসানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সেমিনারে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন, ওজাসের সহসভাপতি ও সিলেট রিপোর্ট ডটকম সম্পাদক মুহাম্মদ রুহুল আমীন নগরী। প্রজেক্টর পরিচালনায় ছিলেন,এম এ সাবলু হৃদয়। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন, ওজাসের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ইকবাল মাহমুদ,এডভোকেট গোলজার আহমদ হেলাল,সিলেটের ডাক’র সিনিয়র আলোকচিত্রি আব্দুল বাতিন ফয়সল, ডেইলি সিলেট ডট কম’র সম্পাদক কে এ রহিম, শাহ সোহেল আহমদ,বনপা’র সাধারণ সম্পাদক মেহেদী কাবুল, বনপার সিলেট বিভাগীয় কমিটির যুগ্ম সম্পাদক এম সাইফুর রহমান তালুকদার,সিলেট মিডিয়া ডটকম সম্পাদক মিসবাহ মনজুর,ওজাসের সহ-সভাপতি আফরোজ খান, সহসেক্রেটারী হুমায়ুন কবির লিটন, কোষ্যধ্যক্ষ-মুন্সি ইকবাল,তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক মাজেদুল হক চৌধুরী, সদস্য মবরুর আহমদ সাজু,মোছা: নাজমিন , শফিকুর রহমান,  সালেহ আহমদ শাহবাগী, আব্দুল বাতিন ফয়সল, সামসুননুর তালুকদার, গ্রাফিক্স ইউনির্ভাসেলের স্বত্বাধিকারী লুৎফুর রহমান ,শাহিদ হাতিমী, আরিফুল ইসলাম, তাসলিমা খানম বিথী, নাজমিন বেগম, লুৎফুর রহমান তোফায়েল, মহিউদ্দীন খালেদ, জাকির আহমদ উবায়দুল্লাহ বিন এফ রহমান,এমদাদুর রহমান মিলাদ, নুরউদ্দীন, মাসুদ আহমদ রণি, তাওহিদুল ইসলাম, আব্দুল মোমিত,  নুরউদ্দীন রাসেল, আশিকুর রহমান চৌধুরী,এনামুল হক, আরমান আলী, আইন উদ্দীন, আতাউর রহমান, এসএমবি ফারুকী প্রমুখ। পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন, সোলাইমান আল মাহমুদ।
দেওয়ান তৌফিক মজিদ লায়েক বলেন, অনলাইন আর প্রিন্ট মিডিয়া একটি অপরটির সাংর্ঘষিক নয়। এক্ষেত্রে সর্তকতার সাথে সংবাদ পোষ্টকরতে হবে। অনলাইনের নীতি মালা প্রয়োজন । তবে অনলাইন সাংবাদিকতায় যারা সম্পৃক্ত তাদেরকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।
লিয়াকত শাহ ফরিদী বলেন, অনলাইন গণমাধ্যমের নীতিমালা না থাকায় কিছুটা সমস্যা পরিলক্ষিত হচ্ছে। সরকার একটি নীতি মালা প্রণয়ন করছে আমরা আশাকরছি এই নীতি মালা প্রকাশের পর আন্দোলনে যেন না যেতে হয়।  তিনি সাংবাদিকতায় র্দীঘ দিনের অভিজ্ঞতা থেকে বলেন, যারা অনলাইনে কাজ করছেন, তাদের প্রশিক্ষনের মাধ্যমে দক্ষতা অর্জন করতে হবে। পিআইবীর প্রশিক্ষন যথেষ্ট নয়, ওজাসকে প্রশিক্ষনের ব্যবস্থাকরতে হবে। কর্মদক্ষতা ও বস্তুনিষ্টার মাধ্যমে কাজকরতে হবে।
সেলিম আউয়াল বলেন,  একসময় আমরা অনলাইনকে গুরুত্ব দিতাম না। পড়বো বলে অনলাইন সম্পর্কে অনেক লেখা সংরক্ষণ করেরেখেছি । কিন্তু পড়বো পড়বো বলেই সময় এসেগেলো অনলাইনের। আজ অনলাইনগণমাধ্যমকে অস্বীকার করার কোন উপায় নেই।
মুহিত চৌধুরী বলেন, অনলাইন গণমাধ্যম হলো বর্তমান পৃথিবীর বাস্তবতা। এই বাস্তবতাকে এখন আর কেউ অস্বীকার করতে পারবেনা।  আমরা চাই ডিজিটাল উন্নয়নের ক্ষেত্রে অনলাইন সাংবাদিকদের পেশার মানগতদিকের উন্নয়ন।

বক্তারা বলেন,তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় তথ্যের স্বচ্ছতা বিধানের মাধ্যমে দুর্নীতি ও অদক্ষতা নির্ণয় করা সহজ হয়।  সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা এবং তার বাস্তবায়ন কৌশল ছাড়া ‘সোনার বাংলা’ বাস্তবায়ন সম্ভব হবে না। বিদ্যুৎ ডিজিটাল ব্যবস্থার চালিকাশক্তি। ডিজিটালপ্রযুক্তির জন্য সবচাইতে বেশী প্রয়োজন বিদ্যুৎশক্তি। বিদ্যুৎশক্তির উৎপাদন ও পরিবহন সমস্যা সমাধান নিয়ে জাতি শঙ্কামুক্ত নয়। বিশ্বে বিদ্যুৎ উৎপাদনের জ্বালানি দ্রুত ফুরিয়ে যাচ্ছে। এই অবস্থায় সৌরশক্তি ব্যবহার করে বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য সর্বাত্মক প্রচেষ্টা করা প্রয়োজন। এ ব্যাপারে জনগণকেও আগ্রহ নিয়ে এগিয়ে আসতে হবে। ডিজিটালপ্রযুক্তি ও বিদ্যুতের ব্যবহার, প্রযুক্তিগত শিক্ষার অবস্থা প্রভৃতির বিবেচনায় ২০২১ সালে সমৃদ্ধশালী ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়ন মোটেই সহজ কাজ নয়।  অনলাইন জাতীয় হোক বা আঞ্চলিক হোক স্বস্ব ক্ষেত্রে সকলেই অবদান রেখে যাচ্ছে। মানের দিকবিবেচনায় এনে সকল গণমাধ্যমকে পৃষ্টপোষকতা করাই হবে সরকারের কর্তব্য। ডিজিটালপ্রযুক্তির ব্যাপক প্রসার তথা অনলাইন মিডিয়া ছাড়া পশ্চাৎপদ বাংলাদেশকে ২০২১ সালের মধ্যে সমৃদ্ধশালী মাঝারী আয়ের দেশে পরিণত করা সম্ভব হবে না বলেও মন্তব্য করেন বক্তারা।  তথ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে জাতীয় অনলাইন নীতিমালার খসড়া চুড়ান্ত হয়েছে। প্রেস ইনস্টিটিউট তাদের সাংবাদিকতার ডিপ্লোমা কোর্সেও অনলাইন সাংবাদিকতার বিষয়টি যুক্ত করেছে। আশার কথা হলো যে, তথ্য মন্ত্রণালয় অনলাইন সাংবাদিকতাকে স্বীকৃতি দিয়েছে। বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউট অনলাইনে কর্মরত সাংবাদিকদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাকরে সনদ বিতরণ করেছেন। বর্তমান সরকার যেহেতু ডিজিটাল মিডিয়া বান্ধব,সঙ্গত কারনেই ক্ষমতাসিন সরকারের কাছে অনলাইন গনমাধ্যম কর্মীদের প্রত্যাশা ও অনেক। প্রশাসনিক-রাষ্ট্রিয় কর্মকান্ডে অনলাইন সাংবাদিকদের সম্পৃক্ত করতে হবে। সকল দিক বিবেচনায় ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে অনলাইন গণমাধ্যমের ভ’মিকা সর্বাদিক গুরুত্ব দিতে হবে। এই সেক্টরে কর্মরত জনশক্তিকে জনসম্পদে পরিনত করতে হবে। তাদের প্রশিক্ষিত করে বিশে^র সাথে প্রিয় বাংলাদেশকে এগিয়ে যেতে  কার্যকরি পদক্ষেপ নিতে হবে।

সেমিনানে মূল প্রবন্ধে উল্লেখ করা হয় , তথ্যপ্রযুক্তি সমৃদ্ধ এক ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলার লক্ষ্যে সরকার বহুমুখী কর্মসূচি বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ মানে তথ্যপ্রযুক্তি-ভিত্তিক সেবার এমনভাবে প্রসার ঘটানো, যাতে আগে যেসব সেবার জন্য নানা জায়গায় ছুটতে হতো তার আর দরকার হবে না -ঘরে বসেই কম্পিউটারে এবং মোবাইল ফোনে তথ্যা জানা যাবে। সরকারের একসেস টু ইনফরমেশন সেকশনের সেবাগুলোকে তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে দ্রুততা এবং জবাবদিহিতার সাথে জনগণের আরো কাছাকাছি নিয়ে আসার জন্য কর্মসুচির আওতাধিন সম্পৃক্ত জনবলকে প্রশিক্ষিত করতে হবে।  প্রযুক্তি-ভিত্তিক সেবাদানের প্রক্রিয়ার আরো প্রসার ঘটলে, এবং কম্পিউটার ও ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা আরো বাড়লে এই ডিজিটাল বাংলাদেশ সম্পর্কে সাধারণ মানুষের ধারণা আরো পরিষ্কার হবে।
‘ভিশন ২০২১’  সাফল্য অর্জনে যুব সমাজকে কর্মক্ষেত্রে সচেতন করতে হবে। অহেতুক সময় নষ্ট না করে প্রযুক্তির সদ্ব্যবহারে প্রতিনি নাগরিককেই এগিয়ে আসতে হবে। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়কে যথাযথভাবে বাস্তবায়ন করতে দেশের শিক্ষা কাঠামোসহ সকল বিভাগকে সম্পূর্ণভাবে ডিজিটালের আওতায় আনতে হবে। ডিজিটালপ্রযুক্তি বা আইসিটিনির্ভর প্রশাসনব্যবস্থা, ব্যবসায়-বাণিজ্য, শিক্ষাব্যবস্থা, চিকিৎসাব্যবস্থা, কৃষি ব্যবস্থাপনা ইত্যাদি  সেকশান সঠিক ভাবে পরিচালিত করতে হলে তথ্যের আদান প্রদানকে সহজতর করতে হবে। জবাব দিহিতা নিশ্চিত করতে হবে। আর এক্ষেত্রে অনলাইন নিউজ পোর্টাল বা অনলাইন গণমাধ্যমের ভূমিকা অনস্বীকার্য। জনগনের নিটক দ্রুত ও সহজ উপায়ে তথ্য পৌছার ক্ষেত্রে অনলাইন গণমাধ্যমই সর্বোত্তম উপায়। কিন্তু রাষ্ট্রিয় সুযোগ সুবিদা প্রাপ্তির ক্ষেত্রে শূণ্যের কৌঠায় অনলাইন গণমাধ্যম সংশ্লিষ্টরা।  সঠিক সংবাদ দ্রুত সর্বরাহে জীবনের ঝুকিঁ নিয়ে কাজ করতে হয় অনলাইন গণমাধ্যম তথা অনলাইন নিউজ পোর্টালে কর্মরত সাংবাদিকদের। অনেক সময় প্রশাসনিক সেক্টর এবং বিভিন্ন স্পটে তথ্য সংগ্রহে নানা জটিলতা দেখা দেয়। গণমাধ্যম যেহেতু রাষ্ট্রের অন্যতম একটি স্থম্ভ সঙ্গত কারনেই এ সমস্যা নিরসনকল্পে সরকারের সংশ্লিষ্টদের এগিয়ে আসতে হবে। অনলাইন গণমাধ্যমকে তথ্য প্রকাশের স্বাধীনতা প্রদান, তাদের প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদান।  তথ্য র্নিভর সংবাদ ও সৃজনশীলতার জন্য পুরস্কৃত করা উচিত।

ওজাসের ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে অনলাইন গণমাধ্যমের ভুমিকা’ র্শীর্ষক সেমিনার: : অনলাইন নিউজ পোর্টাল মানুষের চাহিদা পূরণে ভুমিকা রেখে যাচ্ছে—-জেলা প্রশাসক শহীদুল ইসলাম<br /><br /><br /><br /><br /><br />
http://sylhetreport.com/?p=1723
Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now