শীর্ষ শিরোনাম
Home » বিজ্ঞান-প্রযুক্তি » নিজামীর ফাঁসি: আলেমদের নীরবতায় সোশাল মিডিয়ায় ক্ষোভ !

নিজামীর ফাঁসি: আলেমদের নীরবতায় সোশাল মিডিয়ায় ক্ষোভ !

13178899_625545077597940_1161232955159707295_nবিশেষ প্রতিবেদন: জামাত নেতাদের একের পর এক ফাঁসিতে অন্যান্য আমেলদের খুব একটা সরব দেখা যায় না । আব্দুল কাদের মোল্লার ফাঁসিতে ইসলামী ঐক্য জোটের নেতাদের নিন্দা লক্ষ্য করা গেলেও এর পর অন্য নেতাদের ফাঁসির পর সেটাও মিশে যায়। নিজামীর ক্ষেত্রেও এখন পর্যন্ত কোন নিন্দা আসেনি কোন আলেমদের কাজ থেকে।এনিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে সাঈদী পুত্র মাসুদ লিখেছেন,
একজন নিরাপরাধ বয়োবৃদ্ধ আলেমকে হত্যার উৎসব দেখে যে সকল আলেম বোবা হয়ে আছেন …
আল্লাহ তাদেরকে চিরকালের জন্যে বোবা করে দিন। আমিন।
ইসমাইল জবিহুল্লাহ লিখেছেন,
বাংলাদেশে ইসলামপন্থীদের উপর যেভাবে হত্যার মহড়া চলছে এবং আলেমদের একটি শ্রেণী মুখে কুলুপ দিয়ে বসে আছেন তাতে আমার মনে বারবার একটি প্রশ্নই উঁকি দিচ্ছে। সেটি হল-

এই পরিস্থিতিতে কোন টু শব্দ না করার কারণে আল্লাহ তায়ালা যদি মাওলানা আহমদ শফীকে জিজ্ঞাসা করেন ” তোমার দেশে আলিমদেরকে হত্যার যে রীতি চালু হয়েছিল কেন তুমি তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করোনি? কেন তুমি তার বিরুদ্ধে টু শব্দ করলেনা? তুমি প্রতিবাদ করলে বাংলাদেশের মুসলমানদের মধ্যে একটা ঐক্যের পরিস্থিতি তৈরী হত। বাংলাদেশের মুসলমানরা একতাবদ্ধ হলে ধর্মনিরপেক্ষতাবাদে বিশ্বাসী ধর্মনিপেক্ষ নামের বিধর্মীরা একজন ইসলামপন্থী নেতা দুরের কথা, দেশের অজোপাড়াগায়ে অবস্থিত অপ্রসিদ্ধ একজন সাধারণ মুসলমানের গায়ে আচড় দেয়ারও সাহস পেত না। কিন্তু, কেন তুমি তার প্রতিবাদ করোনি?

এমন প্রশ্নের জবাবে তখন মাওলানা আহমদ শফী আল্লাহ তায়ালাকে কি জবাব দিবেন? শুধুই জানতে মনে চায়। কারও কি এর উত্তর জানা আছে? উনাকে এ প্রশ্নটা জিজ্ঞাসা করে উত্তরটা জানতে পারলে ভালো হত!!!

একজনের মতের সাথে আমার মতের মিল নাও হতে পারে; কিন্তু, অন্যায্যভাবে অন্যায়ভাবে একজন মানুষকে হত্যা করা হবে এটা কোন অবস্থাতেই মেনে নেয়া যায় না। এ সম্বন্ধে আল্লাহ তায়ালা অত্যন্ত কড়া ভাষায় ধমকের স্বরে বলেছেন,”তোমাদের কি হয়েছে???? তোমরা আল্লাহর রাস্তায় অসহায় নারী-পুরুষ ও শিশুদের জন্য লড়াই করছ না? যারা দুর্বলতার কারণে নির্যাতিত হচ্ছে এবং বলছে, হে আমাদের রব! আমাদেরকে এই জনপদ থেকে বের করে নিয়ে যাও যার অধিবাসীরা জালেম এবং তোমার পক্ষ থেকে আমাদের জন্য সাহায্যকারী তৈরী করে দাও।” (সুরা নিসাঃ ৭৫)
আল্লাহ তায়ালা যদি আমাদের সবাইকে এ প্রশ্নটা করে বসেন আমরা কি আল্লাহ তায়ালার এ প্রশ্নের জবাব দিতে পারব?? আল্লাহ আমাদের অযোগ্যতাকে ক্ষমা করুন। আমীন।
শাহেদ লিখেছেন,
ভয় আছে সবার। প্রতিবাদ করলে যুদ্ধাপরাধ মামলায় জড়িয়ে ফাঁসি দিবে। কাউকে যুদ্ধাপরাধী প্রমাণ করা এখন বাংলাদেশে সবচেয়ে সহজ কাজ । তাই ভয়ে আলেম-জালেম সবাই চুপ ।
আবু সামিহাহ লিখেছেন,
তোমাদের মনে করার কোন কারণ নেই যে জামাআতে ইসলামীর লোকেরাই শুধু ফাঁসির কাষ্ঠে ঝুলবে। তঁদের মধ্যে যাঁরা ঝুলবেন তারাতো তাঁদের রব্বের কাছেই চলে যাবেন। কিন্তু তোমাদের মুসলমানী আত্মাভিমান ও আত্মমর্যাদাবোধ যদি থাকে তবে তাকে বার বার আহত করা হবে ব্রাহ্মণ্যবাদীদের হাতে। অবশ্য ঈমানী আত্মমর্যাদাবোধ যদি ভুলে গিয়ে থাক, তাহলে ভিন্ন কথা।
আমার রব্বের কাছে দু’আ থাকবে নিজামীদের খুনও যেন অন্তত তোমাদের বিবেকের বীজে শক্তি সঞ্চারিত করে অঙ্কুরোদগমে সহায়তা করে। নতুবা জামাতী মনে করে তাদের জন্য প্রতিবাদে দাঁড়াওনি বলেই তোমাদের সালাফিত্ব ও দেওবন্দিত্ব তোমাদেরকে মুক্তি এনে দেবে না। মনে রেখ তোমাদের সক্রিয় ও সজীব অস্তিত্বকেই শুধু ব্রাহ্মণ্যবাদী দুশমনরা ভয় করে।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now