শীর্ষ শিরোনাম
Home » সিলেট » সিলেটের মাওলানা আমকুনীকে “নিষ্পাপ ” ঘোষণা: আলোচনার ঝড়

সিলেটের মাওলানা আমকুনীকে “নিষ্পাপ ” ঘোষণা: আলোচনার ঝড়

Copy of 265সিলেট রিপোর্ট: সিলেটের বহুল আলোচিত মাওলানা শফিকুল হক আমকুনীকে “নিষ্পাপ ” ঘোষণা করেছেন কানাইঘাটের তাঁর এক ভক্ত। এনিয়ে সামাজিক জনপ্রিয় সাইট ফেইসবুকে নানা কথা বার্তা চলছে। নিষ্পাপ ঘোষণা দিয়ে ভক্ত সত্যিকার অর্থেই কী তাঁর সুনাম বৃদ্ধির জন্য, না তাকেঁ বির্তকিত করার জন্যে ? এমন মন্তব্য  এনিয়ে ও চলছে নানা কানাঘুষা।  সিলেটের সুবহানীঘাটস্থ জামিয়া মাহমুদিয়া মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা শফিকুল হক আমকুনীকে “নিষ্পাপ ” উল্লেখ করে তাঁর এক ভক্ত ফেইসবুকে মন্তব্যকরায় তিনি আবারো আলোচনায় আসেন।
অনুসন্ধানে জানাগেছে, গতকাল ইসলাম উদ্দীন নামক দারুল উলুম কানাইঘাট মাদ্রাসার এক ছাত্র মাওলানা আমকুনীর পক্ষে কথা বলতে গিয়ে  তিনি “নিষ্পাপ আল্লামা আমকুনী” শব্দটি উল্লেখ করেছেন। সত্যিকার অর্থেই কী তিনি নিষ্পাপ? এমন প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। কারণ একমাত্র নবী-রাসুলগন এবং নাবালক শিশু ছাড়া কোন মানুষ নিষ্পাপ হতে পারেন না। এনিয়ে ফেইসবুকে আলোচনার ঝড় বইছে। মন্তব্যকারী ইসলাম উদ্দীনের প্রতি অনেকেই বির্তকিত মন্তব্য প্রত্যাহারের দাবী জানিয়েছেন ।  এদিকে, সিলেটের তরুণ আলেম লুকমান হাকিম তার ফেইসবুক আইডিতে “নিষ্পাপ আল্লামা আমকুনী” মন্তব্যটির প্রতি উত্তরে যা লিখেছেন তা পাঠকদের সামনে উপস্থাপন করাহলো: “নিষ্পাপ আল্লামা আমকুনী”বললেন উনার এক ভক্ত দারুল উলুমের”ইসলাম উদ্দীন”
(লা হাওলা .. অন্তত একবার বলুন) আমরা জানি সকল আম্বিয়ায়ে কিরাম মা’সুম(নিষ্পাপ)ক্বাবলান নুবুওয়াহ ও বা’দান নুবুওয়াহ(ঐশী বাণী আসার পূর্বে ও পরে). অন্যদিকে সাহাবায়ে কিরাম মাগফুর(ক্ষমাপ্রাপ্ত).আর আমরা ঘোষিত নিষ্পাপও না,আবার ঘোষিত ক্ষমাপ্রাপ্তও না। তাইলে,আমাদের কারো ক্ষেত্রেতো নিষ্পাপ বা ক্ষমাপ্রাপ্ত বলার জো নেই।
উল্লেখ্য,
#ইসলাম উদ্দীন কানাইঘাটী এক ভাইয়ের কমেন্টের জবাবে আমার এ পোস্ট হলো। তিনি তার মন্তব্য প্রসব করতে গিয়ে দেখুন কী পরিমাণ সীমালঙ্গনের ধারস্ত হয়েছেন আর কোন প্রকারের ভক্তি দেখিয়েছেন বিবেচনা আপনাদের হাতে। তিনি বলেছেন”নিষ্পাপ আল্লামা আমকুনী” মাওলা! হেফাজত করো! বিস্তারিতো কমেন্টবক্সে!

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now