শীর্ষ শিরোনাম
Home » শীর্ষ সংবাদ » অর্থনৈতিক যুদ্ধে বিজয়ী না হলে গণতন্ত্র ও মুক্তিযুদ্ধের সফলতা পাওয়া যাবে না—- শফিক রেহমান

অর্থনৈতিক যুদ্ধে বিজয়ী না হলে গণতন্ত্র ও মুক্তিযুদ্ধের সফলতা পাওয়া যাবে না—- শফিক রেহমান

সিলেট রিপোর্ট:  দেশের প্রথিতযশা সাংবাদিক বিশিষ্ট টিভি ব্যক্তিত্ব শফিক রেহমান বলেছেন, অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি ছাড়া দেশকে এগিয়ে নেয়া সম্ভব নয়। অর্থনৈতিক যুদ্ধে বিজয়ী না হলে গণতন্ত্র ও মুক্তিযুদ্ধের সফলতা পাওয়া যাবে না। দেশের ধনী-গরীবের বৈষম্য বেড়ে গেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই বৈষম্য কমিয়ে আনতে রোটারীয়ানদের কাজ করতে হবে।
রোটারী ক্লাব অব সিলেট ক্বীন ব্রিজের দ্বিতীয় অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। গতকাল সোমবার রাতে নগরীর একটি অভিজাত হোটেলে অনুষ্ঠিত অভিষেক অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রোটারীর সাবেক ডিস্ট্রিক গভর্নর ডা. মঞ্জুরুল হক চৌধুরী, বিশিষ্ট সাংবাদিক ও টিভি উপস্থাপক মুশফিকুল ফজল আনসারী, রোটারীর ডেপুটি গভর্নর ড. আর.কে ধর, এসিস্টেন্ট গভর্নর অ্যাডভোকেট বদরুল হোসেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে শফিক রেহমান আরও বলেন, সমাজে ভালবাসা যত বৃদ্ধি পাবে তত সহিংসতা কমে আসবে। এজন্য একে অন্যের প্রতি ভালবাসা বাড়াতে হবে। সিলেটের মানুষের মধ্যে বহুমুখিতা ও আন্তর্জাতিকতা আছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সিলেটের দুই কৃতিপুরুষ বর্তমান অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত ও সাবেক অর্থমন্ত্রী এম. সাইফুর রহমানের সাথে আমার সুসম্পর্ক রয়েছে। এম. সাইফুর রহমান আমার ব্যবসায়ীক পার্টনার ছিলেন।
পশ্চীমা বিশ্বে ইন্ডিয়ান খাবারের বাজার সিলেটীরা ধরে রেখেছেন জানিয়ে তিনি বলেন, সিলেটীদের আরও এগিয়ে যেতে হবে। সিলেটকে বিশ্ব দরবারে আলাদে একটি সিটি হিসেবে তুল ধরতে হবে।
দুই পর্বে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন রোটারী ক্লাব অব সিলেট ক্বীন ব্রিজের সভাপতি রোটারীয়ান বদরুল আলম চৌধুরী ও চার্টার্ড প্রেসিডেন্ট রোটারীয়ান এমএ ওয়াদুদ আল মামুন।
অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন রোটারীয়ান শহীদ আহমদ চৌধুরী, রোটারীয়ান সৈয়দ আশরাফ আহমদ, সিলেটের বিশিষ্ট সাংবাদিক গল্পকার সেলিম আউয়াল, রোটারীয়ান শামসুল হক দিপু, খেয়া স্মারকের প্রধান সম্পাদক শাহীন আহমদ প্রমুখ।
শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অভিষেক উদযাপন কমিটির চেয়ারম্যান রোটারীয়ান রাজু আহমদ। সেক্রেটারি রিপোর্ট পেশ করেন রোটারীয়ান আব্দুস সালাম। রোটারী প্রত্যয় পাঠ করেন রোটারীয়ান তাইব খান লামিম। প্রধান অতিথির পরিচিতি পাঠ করেন রোটারীয়ান অ্যাডভোকেট রফিক আহমদ চৌধুরী। সেক্রেটারি ঘোষণা দেন রোটারীয়ান রফিকুল ইসলাম। ধন্যবাদ বক্তব্য রাখেন ক্লাবের প্রেসিডেন্ট ইলেক্ট রোটারীয়ান আকবর আলী। পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত করেন রোটারীয়ান মাওলানা মোহাম্মদ আলী।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রোটারীর সাবেক ডিস্ট্রিক গভর্নর ডা. মঞ্জুরুল হক চৌধুরী বলেন, রোটারীয়ানরা শত কর্মের মাঝেও সমাজ ও দেশের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। এসব কাজের অসংখ্য নজির রয়েছে। সমাজসেবামূলক কর্মকান্ডে রোটারীয়ানদের আরও অংশগ্রহণের আহŸান জানিয়ে তিনি বলেন, একেক জন রোটারীয়ান যেন সমাজের একেক জন আলোকবর্তিকা হতে পারেন, সেই লক্ষ্য নিয়ে কাজ করতে হবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিশিষ্ট সাংবাদিক ও টিভি উপস্থাপক মুশফিকুল ফজল আনসারী বলেন, বিশ্বের অন্যান্য দেশের রোটারীয়ানদের চেয়ে বাংলাদেশের রোটারীয়ানরা বেশি প্রশংসার দাবিদার। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানুষ প্রতিনিয়ত দরিদ্রের সাথে যুদ্ধ করে যাচ্ছে। কিন্তু এর মাঝে যে রোটারীয়ানরা সমাজ ও দেশের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন তা অবশ্যই অনুসরণীয়। পোলীওর বিরুদ্ধে রোটারী আন্দোলনের সংগ্রামকে তিনি উদাহরণ হিসেবে উল্লেখ করেন।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now