শীর্ষ শিরোনাম
Home » মাওলানা মুহিউদ্দীন খান প্রসঙ্গ » বড়ভাইয়ের মৃত্যুতে ছোট ভাইয়ের অনুভূতি..

বড়ভাইয়ের মৃত্যুতে ছোট ভাইয়ের অনুভূতি..

28-4-16 salah-khan--14-6-16সালাহ উদ্দীন খান: আমার আব্বা ইন্তেকাল করেন ১০ রমজানে। আম্মা ইন্তেকাল করেন ২০ রমজানে। আজ ১৯শে রমজান ইফতারের আগমূহুর্ত (৬টা ১০) আমার শ্রদ্ধেয় বড়ভাই, মাসিক মদীনা সম্পাদক মাওলানা মুহিউদ্দীন খান ঢাকার ল্যাবএইড হসপিটালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগকরেন। (ইন্নালিল্লাহি…)।
.আমরা জানি “বিসমিল্লা হিররাহমা নিররাহিম” এর মাঝে ১৯টি হরফ রয়েছে এবং পবিত্র কোরআনুল কারীমের মাঝে এই ১৯ সংখাটি গভীরভাবে জড়িয়ে আছে।
.
আমরা জানিনা আল্লাহর তাঁর পবিত্র কোরআনের এই খাদেম তফসীরে মা আরেফুল কোরআনের বাংলা অনুবাদককে পবিত্র রমযান মাসের ১৯ শে রমজানের ইফতারের সময়ে কবুল করে নেয়ার মাঝে কি হেকমত লুকায়িত, আমরা এটাকে ইতিবাচক হিসাবেই মনে করছি, দেশবাসীসহ সকল বন্ধুদের প্রতি নিবদন যে, আমার ভাইয়ের বিদেহী আত্বার মাগফিরাতের জন্যে মাওলার দরবারে একটু দোয়া করবেন। আল্রাহ যেন তাঁর এ বান্দাকে জান্নাত নসীব করেন- আমীন।
.
আগামীকাল রোববার জুহরবাদ ঢাকা বাইতুল মোকাররম ১ম জানাযা অনুষ্ঠিত হবে। অতঃপর তাঁকে গফরগাঁয়ের গ্রামেরবাড়ি আনসারনগরে আনাহবে। পরদিন সোমবার বেলা ১১ টায় আনসারনগর মাদ্রাসা মাঠে ২য় জানাযা অনুষ্ঠিত হবার পর পারিবারিক গোরস্থানে পিতামাতার কবরপাশে তাঁকে সমাহিত করা হবে।’

অসুস্থ বড় ভােকে দেখে আসে যে পোষ্ট দিয়েছিলেন সালাহ উদ্দীন খান:
এ বুকের ব্যাথা গুলি
দুঃখ যাতনা ভুলি
এ মনের চাওয়া পাওয়া
কারে শুনাই
মন চায়
ও বুকে মাথা রেখে
আরেক বার ঘুমাই

৮ জুনের পোষ্ট :
আজ ১৫ দিন অতিবাহত হলো মাওলানা মুহিউদ্দীন খান সাহেব লাইফ সার্পোটে চেতনাহীন অবস্থায় আছেন। তার ডায়লোসিসের জন্য রক্তের প্রয়োজন জানিয়ে পোস্ট দেয়ার পর যারা সারা দিয়েছেন আমরা তাদের সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। ডায়লোসিসে মাত্র ৪ ব্যাগ রক্ত লেগেছে। আলহামদুলিল্লাহ এ ছাড়া আরও ৪০০ এর অধিক জন প্রয়োজনে রক্ত দিতে তৈরী আছেন। আমরা সকলের প্রতি কৃকজ্ঞ।
২৮ এপ্রিল:
আলহামদুলিল্লাহ।
সকলের দোয়ার বরকতে ও মহান রাব্বুল আলামিনের মেহেরবানীতে মাসিক মদীনা সম্পাদক মাওঃ মুহিউদ্দীন খান সাহেবের শারীরিক অবস্থার আরও উন্নতি হয়েছ। তিনি এখন বসে থাকতে পারেন। ছবিতে তাকে চেয়ারে বসে পত্রিকা পড়তে দেখা যাচ্ছে।
Salahuddin Khan

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now