শীর্ষ শিরোনাম
Home » খেলাধুলা » শাবিতে ড. ছদরুদ্দিন স্মরণে শোকসভা

শাবিতে ড. ছদরুদ্দিন স্মরণে শোকসভা

66435সিলেট রিপোর্ট: শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ভাইস চ্যান্সেলর বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ড. ছদরুদ্দিন আহমদ চৌধুরী স্মরণে শোক ও আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়েছে।

সোমবার সকাল এগারোটা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত শাবিপ্রবির কেন্দ্রীয় মিলনায়তনে এ শোকসভা ও আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়। এ সময়টাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের যাবতীয় একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম বন্ধ ছিলে।

রেজিস্ট্রার মো. ইশফাকুল হোসেনের সঞ্চালনায় বর্তমান ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. আমিনুল হক ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে স্মৃতিচারণ করে ড. ছদরুদ্দিনের বড় ভাই বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশনের সাবেক কর্মকর্তা ইঞ্জিনিয়ার মো. বদরুদ্দিন আহমদ চৌধুরী।

স্মৃতিচারণায় তিনি বলেন, তার ভাই দায়িত্ব নেয়ার পর সবসময় ভাবতেন কিভাবে এ বিশ্ববিদ্যালয়কে একটি আন্তর্জাতিক মানে পরিণত করা যায়। এছাড়া শিক্ষাক্ষেত্রে প্রচন্ড একাগ্রতা তাকে এ সম্মান এনে দিয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

সভায় আরও বক্তব্য রাখেন কোষাধ্যক্ষ ড. ইলিয়াস উদ্দিন বিশ্বাস, সমাজবিজ্ঞান বিভাগের সাবেক প্রধান অধ্যাপক ড. কামাল আহমেদ চৌধুরী, ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক ড. রাশেদ তালুকদার, ড. কবির হোসেন, ড. আখতারুল ইসলাম, ড. সাবিনা ইসলাম, প্রথম ব্যাচের শিক্ষার্থী রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. নিজাম উদ্দিন আহমদ, পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের প্রধান ড. সৈয়দ বদিউজ্জামান ফারুক, ড. শাহআলম, কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক তাজুল ইসলাম, কর্মকর্তা এসোসিয়েশনের সভাপতি মুজিবুর রহমান, হিসাব পরিচালক আ ন ম জয়নাল আবেদিন, শাবি ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজিদুল ইসলাম সবুজ প্রমুখ।

শোকসভায় বক্তারা বলেন, ড. ছদরুদ্দিন নিজের দায়িত্বে এতটাই একাগ্র ছিলেন যে তার মন সর্বদা বিশ্ব বিদ্যালয়ে পড়ে থাকত। চারিত্রিক দৃঢ়তা ও সৌন্দর্য দিয়ে তিনি তার সময়ে বিশ্ববিদ্যালয় সংশ্লিষ্ট সকলের মন জয় করে নিয়েছেন। তিনি শুধুমাত্র একজন ভাইস চ্যান্সেলরই ছিলেন না। একজন অভিভাবক হিসেবে তিনি সকল দায়িত্ব পালন করেছেন। তাঁর প্রশাসনিক নেতৃত্বের দক্ষতা অত্যন্ত প্রকট। বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্মাণ কাজে তিনি ছিলেন একজন অতন্দ্র প্রহরী।

প্রখর বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন শিক্ষক ছিলেন তিনি বলে উল্লেখ করেন বক্তারা। ভিসি ড. আমিনুল হক ভূঁইয়া বলেন, তার স্বপ্নের পথ ধরেই সম্ভাবনাময় সোনার বাংলা গড়তে এগিয়ে যাবে শাবিপ্রবি। ২৫ বছর পূর্বে এই বিচক্ষণ ভাইস চ্যান্সেলর যা করেছেন তা থেকে অনুপ্রেরণা নিয়ে বাংলাদেশ তথা বিশ্বের দরবারে সাড়া ফেলছে এবং এই ধারা অব্যাহত থাকবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। তিনি বলেন, ক্রান্তিকালে সর্বদা সাহস যুগিয়েছেন ড. ছদরুদ্দিন।

এসময় ড. ছদরুদ্দিনের স্মৃতি অমলিন থাকার প্রত্যয়ে ফি বছর একটি সেমিনার আয়োজনে সর্বদা সহযোগীতা করবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বলে উল্লেখ করেন তিনি।

এর আগে রবিবার সিন্ডিকেটের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তিনদিনের শোকদিবস ঘোষনা করা হয়। কর্মসূচির অংশ হিসেবে শেষদিন  মঙ্গলবার বাদ জোহর মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করে কেন্দ্রীয় মসজিদে দো’আ মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। রবিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয়।

উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন থেকে বার্ধক্যজনিত রোগে শয্যাশায়ী ড. ছদরুদ্দিনের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়।

শনিবার বিকেলে ঢাকার ল্যাব এইড হসপিটালে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৮৬ বছর। তিনি ১৯৮৯ থেকে ১৯৯৩ সাল পর্যন্ত শাবির প্রতিষ্ঠাকালীন ভাইস চ্যান্সেলর হিসেবে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন।

তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে শাবি পরিবারে।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now