শীর্ষ শিরোনাম
Home » সাহিত্য » মুসাফিরের রোজনামচা

মুসাফিরের রোজনামচা

sadwdমুহাম্মদ রুহুল আমীন নগরী:

(পর্ব-০১)
এবারের ঢাকা সফর নানা কারনে তাৎপর্যবহ। ২৫ জুলাই ২০১৬ সোমবার দিবাগত মধ্যরাতে ঢাকার উদ্দেশ্যে সিলেট ত্যাগকরি। র্নিধারিত নোহা গাড়ী রাত সোয়া ১টায় জগন্নাথপুরের সৈয়দপুরে পৌছায়,সেখানে ইউকে জমিয়তের মহাসচিব হাফিজ মাওলানা সৈয়দ তামিম আহমদ ও মিডিয়া সেক্রেটারী মুফতি সৈয়দ রিয়াজ আহমদ অপেক্ষমান। বাংলাদেশের দ্বিতীয় লন্ডন খ্যাত ঐতিহ্যবাহী সৈয়দপুরের রাস্তার ভঙ্গুর দশা,এটা অকল্পনিয় হলেও সত্য। সৈয়দপুর শাহার-গোয়ালাবাজারের রাস্তা আরো কাহিল হওয়ায় ভবের বাজার হয়ে আবারো রশিদপুর এসে ঢাকার পথে রওয়ানা হলাম। শেরপুর আসতেই রাত তখন পৌনে ৩ টা। সকাল ১০টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবে ঠাই দাঁড়ালো আমাদের বাহন। চলমান সময়ের সবচাইতে বড় সমস্যা সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ ইস্যুনিয়ে প্রেসক্লাবের ২য় তলায় ইউথফোরামের গোলটেবিল বৈঠকে শরীক হই।
সকাল ১০টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবে ঠাই দাঁড়ালো আমাদের বাহন। চলমান সময়ের সবচাইতে বড় সমস্যা সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ ইস্যুনিয়ে প্রেসক্লাবের ২য় তলায় ইউথফোরামের গোলটেবিল বৈঠকে শরীক হলাম। বিশিষ্ট জনেরা গুরুত্বপুর্ন মতামত ব্যক্ত করলেন। সাবেক উপপ্রধানমন্ত্রী শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন। বেলা ১টার দিকে প্রেসক্লাব থেকে বেরহয়ে আমরা কামরাঙ্গীরচরের মুসলিমবাগের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হলাম। তরুণ লেখক আলেম মাওলানা রেজাউল কারীম পুর্ব থেকেই জাতীয় প্রেসক্লাবে আমাদের জন্য অপেক্ষা করছিলেন। তিনি হাজী
আব্দুল আলী শামসুল উলুম মাদরাসার মুহাদ্দিস।

(পর্ব-০২)
বেলা ১টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাব থেকে বেরহয়ে আমরা বুড়িগঙ্গার তীরে অবস্থিত কামরাঙ্গীরচরের মুসলিমবাগ এলাকায় ‘হাজী আব্দুল আলী শামসুল উলুম মাদরাসা ও এতিমখানায় পৌনে ৩টায় এসে জোহর আদায় করলাম। মাওলানা রেজাউল কারীম এর দাওয়াতে দুপুরে শানদার মেহমানদারী হলো শামসুল উলুম মাদরাসায়। প্রতিষ্ঠানটির মুহতামিম,নাজিমসহ উস্তাদগন আমাদের সানন্দে গ্রহণ করলেন।
আল্লাহর এক প্রিয়বান্দা বিপুল সম্পত্তি ওয়াক্ফকরে দিয়েছেন এই প্রতিষ্ঠানটির জন্য। প্রয়াত হাজী আব্দুল আলী আরো কয়েকটি মসজিদ -মাদরাসার জন্য কয়েক কোটি টাকার সম্পত্তি আল্লাহর রাস্তায় দান করেগেছেন। বর্তমানে মরহুমের নাতি প্রতিষ্ঠানের মুতাওয়াল্লীর দায়িত্বপালন করছেন। হিফজ,নুরানী বিভাগসহ বর্তমানে মিশকাত জামাত পর্যন্ত চলছে। সুন্দর মনোমুগ্ধকর পরিবেশ। সিলেটি আলেম মাওলানা আব্দুর রশীদ চৌধুরী বর্তমানে মুহতামিমের দায়িত্বপালন করছেন। তিনি জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম কামরাঙ্গীরচর থানার আহবায়ক।
ইউকে জমিয়তের মহাসচিব হাফিজ মাওলানা সৈয়দ তামিম আহমদ ও মিডিয়া সেক্রেটারী মুফতি সৈয়দ রিয়াজ আহমদসহ ৯ সদস্যের আমাদের পুরো কাফেলাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান শিক্ষক-শিক্ষার্থীগন। কামরাঙ্গীরচর থানা জমিয়তের নেতৃবৃন্দ এবং জামিয়া শামসুল আলমের শিক্ষক-শিক্ষার্থীগনের সাথে পৃথক পৃথক মতবিনিময় হয়। থানা জমিয়তের সদস্য সচিব মুফতি আমিনুল ইসলাম থানা যুব জমিয়তের সভাপতি মাওলানা নাজির হোসাইন,মাওলানা জাকির হোসাইন গুরুত্বপুনৃ বক্তব্য রাখেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, যুব জমিয়তের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক রুহুল আমীন নগরী, যুব জমিয়ত নেতা মাওলানা মারজান ফেদাউর, ছাত্র নেতা হাফিজ আহমাদুল হক, সৈয়দ হাবীব সালেহ, সৈয়দ নাসির আহমদ প্রমুখ। যুব নেতা নাজির হোসাইন আগামীতে ঢাকা দক্ষিণ ৫৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে নির্বাচন করতে চান। এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা তরুণ এই আলেম একজন জনপ্রতিনিধি হতে আগ্রহী। তিনি সকলের নিকট দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করেন।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now