শীর্ষ শিরোনাম
Home » প্রবাস » নিউইয়র্কে সাংবাদিক আবদুর রাহমান এর শোক সভা ও দো’য়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

নিউইয়র্কে সাংবাদিক আবদুর রাহমান এর শোক সভা ও দো’য়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

13894985_538674683003134_7063637741065492627_nসিলেট রিপোর্ট,নিউইয়র্ক প্রতিনিধি: সিলেটের প্রতিভাবান সাংবাদিক এবং শিক্ষাবিদ মরহুম আবদুর রাহমানের মৃত্যুতে নিউইয়র্কে অবস্থানরত সিলেটের সাংবাদিক,লেখকদের উদ্যোগে সোমবার বাদ আছর এক শোক সভা ও দো’য়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।বাংলাদেশী অধ্যুষিত নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের পালকী পার্টিতে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তারা বলেন, মরহুম আবদুর রাহমান ছিলেন তরুণ প্রজন্মের একজন শক্তিমান মিডিয়া ব্যক্তিত্ব।তাঁর মৃত্যুতে সিলেটবাসী একজন সৎ নিষ্ঠাবান, প্রতিভাধর সাংবাদিক ও শিক্ষাবিদকে হারালো। মাহফিলে মরহুমের সহকর্মী সিলেট প্রেসক্লাব এর প্রাক্তন এ জি এস ও সিলেট সুরমার সম্পাদক সাংবাদিক এমদাদ হোসেন দীপু এর সভাপতিত্বে ও ইয়র্ক বাংলা’র সম্পাদক রশীদ আহমদ এর পরিচালনায় সভার শুরুতে কুরআনে হাকীম থেকে তেলাওয়াত করেন তরুন সংগঠক আমিনুল ইসলাম খান শাহীন। সাংবাদিক আবদুর রাহমান এর জীবনের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনায় অংশ গ্রহণ করেন বিশিষ্ট সাংবাদিক ও লেখিকা শামসাদ হুসাম, এমদাদ হোসেন দীপু,হিউম্যানিটি ক্লাব অফ আমেরিকা ইনক এর সেক্রেটারী সাংবাদিক আলম চৌধুরী, ছড়াকার বশির আহমদ জুয়েল ও আমিনুল ইসলাম খান শাহীন প্রমূখ। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত বিশিষ্ট লেখক আবু জাফর মাহমুদ,প্রবীণ সাংবাদিক জনাব জয়নাল আবেদীন, লেখক শিকদার গিয়াস উদ্দীন, নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সেক্রেটারী জনাব এ বি এম সালাহ উদ্দীন আহমেদ, সাংবাদিক রিমন ইসলাম, আমেরিকান প্রেসক্লাব এন্ড বাংলাদেশ অরিজিন এর প্রেসিডেন্ট হাকিকুল ইসলাম খোকন,সাপ্তাহিক জনতার কন্ঠ সম্পাদক সামছুল আলম সাংবাদিক শিবলী চৌধুরী কায়েস প্রমূখ।মরহুমের মাগফিরাত কামনা করে দো’য়া পরিচালনা করেন ইয়র্ক বাংলা রশীদ আহমদ।
উল্লেখ্য যে,প্রতিভাধর এই সাংবাদিক দৈনিক কালের কণ্ঠের প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সিলেটের নিজস্ব প্রতিবেদক ও কোম্পানীগঞ্জের এম. সাইফুর রহমান কলেজের প্রভাষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।এছাড়াও তিনি স্থানীয় দৈনিক সিলেটের ডাক, জালালাবাদ ও প্রতিদিন এর রিপোর্টার হিসেবে দীর্ঘদিন সুনামের সাথে কর্মরত করেছেন। তরুণ সাংবাদিক মরহুম আবদুর রাহমান তাঁর খাদ্যনালীতে দূরারোগ্য ক্যান্সারে দীর্ঘ আট মাস ধরে ভুগছিলেন।তিনি গত পঁচিশে জুলাই সোমবার সিলেটের এম এ জি ওসমানী হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল চল্লিশ বছর।তাঁর স্ত্রী ও একমাত্র সন্তান ফাইজা কে রেখে গেছেন।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now