শীর্ষ শিরোনাম
Home » বিভিন্ন জেলা-উপজেলা » সৈয়দপুরে মাওলানা মুহিউদ্দিন খানের ৩ ছেলে: সিলেটকে তিনি দ্বিতীয় বাড়ী মনে করতেন

সৈয়দপুরে মাওলানা মুহিউদ্দিন খানের ৩ ছেলে: সিলেটকে তিনি দ্বিতীয় বাড়ী মনে করতেন

naem11সৈয়দ নাসির আহমদ,সিলেট রির্পোট: জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদের সাবেক কেন্দ্রিয় নির্বাহী সভাপতি মাসিক মদীনার সম্পাদক ফখরে মিল্লাত আল্লামা মুহি উদ্দীন খান রহ. এর জীবনের উপর স্মৃতিচারন মূলক আলোচনা ও দোয়া মাহফিলে মরহুমের ছেলেরা বলেছেন, আমাদের বাবা মরহুম মাওলানা মুহিউদ্দীন খান (রহ)বৃহত্তর সিলেটের লোকজনকে অত্যন্ত মহব্বত করতেন। সিলেটের মাটি ও মানুষের সাথে তাঁর হৃদয়ের ঠান ছিলো। তিনি সিলেটকে দ্বিতীয় বাড়ী মনে করতেন।” গতকাল ১১ অাগস্ট বাদ মাগরিব জগন্নাথপুর উপজেলার ঐতিহ্যবাহী সৈয়দপুর পশ্চিম পাড়া মাওলানা সৈয়দ আব্দুর নুর সাহেবের বাড়ীতে ‘জমিয়ত মনজিল’এ আযোজিত  আল্লামা মুহি উদ্দীন খান রহ. এর জীবনের উপর স্মৃতিচারন মূলক এক আলোচনা ও দোয়া মাহফিলে খানপরিবারের সদস্যগন এসব কথা বলেন। সৈয়দপুর আলিয়া মাদরাসার সাবেক উপধ্যক্ষ জমিয়তের প্রবীণ মুরুব্বী মাওলানা সৈয়দ আব্দুন নুর্এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত স্মৃতিচারণ মুলক সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জমিয়ত উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ ঢাকা মহানগরীর সভাপতি মুফাস্সীরে কোরআন হাফেজ মাওলানা শায়খ মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দি। মাসিক মদীনা লেখক-পাঠক ফোরাম সিলেটের সদস্য সচিব মুহাম্মদ রুহুল আমীন নগরীর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত স্মরণ সভায় বক্তব্য রাখেন, মরহুম মুহিউদ্দীন খানের বড়ছেলে ও জমিয়ত উলামায়ে ইসলামের কেন্দ্রীয় শিল্প-বানিজ্যবিষয়ক সম্পাদক মোস্তফা মুঈনুদ্দীন খান, মাসিক মদীনার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আলহাজ্ব মাওলানা আহমদ বদরুদ্দীন খান, মাসিক আর্দশ নারী সম্পাদক মুফতি আবুল হাসান শামসাবাদী, সৈয়দপুর জামেয়া মুহাদ্দিস মাওলানা সৈয়দ মাসরুর কাসেমি, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ইউকের মহাসচিব হাফিজ মাওলানা সৈয়দ তামীম আহমদ, ইউকে জমিয়তের সাংগঠনিক সম্পাদক মাও: সৈয়দ নাঈম আহমদ, মিডিয়া বিষয়ক সম্পাদক মুফতি সৈয়দ রিয়াজ আহমদ, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মর্তুজা বশীর উদ্দীন খান, মাওলানা শহিদুল ইসলাম কবির, প্রয়াত আল্লামা মুহিউদ্দিন খানের নাতী ব্যারিষ্টার সালমান মস্তফা খান, খলিফায়ে মাদানী শায়খে গুনই এর ছাহেব যাদা মাওলানা শাহ সালেহ আহমদ, রুখন উদ্দিন খান নাসিম, ফজলুল করিম ,হাফিজ আহমাদুল হক উমামা, মারজান ফেদাউর, হাফিজ সুহাইল আহমদ , সৈয়দ হাবীব সালেহ, সৈয়দ নাসির প্রমুখ। পরিশেষে মাওলানা মঞ্জুর সাহেবের দোয়ার মাধ্যমে সমাপ্তি ঘটে । মোস্তফা মুঈনুদ্দীন খান বলেন, সৈয়দ পুরের যে ক’জন লোককে আমার পিতা বেশী ভাল বাসতেন সৈয়দ আব্দুন নুর তাদের অন্যতম। এই পরিবারের কথা বাবা অনেক আগে থেকেই বলতেন। একটি আর্দশ ফ্যামেলী হিসেবে গন্যকরতেন। সৈয়দ মাসরুর,তামিম,সালিম,নাইম,রিয়াজকে স্নেহকরতেন। জমিয়ত ও তাদের পরিবারের সাথে মরহুম খানের পরিবারের সদস্যদের মধ্যে ভালবাসার বন্ধন যাতে আরো সুদৃঢ় হয় সে দিকে গুরুত্বারোপ করেন সৈয়দ তামিম আহমদ। সভাপতির বক্তব্যে মাওলানা সৈয়দ আব্দুন নুর পাক আমলে মাওলানা মুহিউদ্দীন খানের সঙ্গে এক সাথে পবিত্র হজ্ব পালনের স্মৃতি চারণ করে অশ্রুসিক্তহয়ে যান।
আলোচকগন অতীতের স্মৃতি রোমন্তন করে আবেগাপ্লুপ হন। সর্বশেষে মাওলানা মনজুরুল ইসলাম এর মোনাজাতের সময় গোটা অনুষ্ঠান স্থালে কান্নার রুল পড়ে যায়। সকলেই কায়োমনোবাক্যে মহান আল্লাহর দরবারে মরহুম খান ও সৈয়দ আব্দুর নুর সাহেবের সহধর্মীনী সৈয়দা আফিয়া খাতুনের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now