শীর্ষ শিরোনাম
Home » আর্ন্তজাতিক » খুনির বিচার হবে: জানাজায় আশ্বাস নিউইয়র্ক মেয়রের

খুনির বিচার হবে: জানাজায় আশ্বাস নিউইয়র্ক মেয়রের

ana pic_124122_1.pngরশীদ আগমদ, যুক্তরাষ্ট্র থেকে: যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের কুইন্সে দুর্বৃত্তের গুলিতে নিহত ইমাম মাওলানা আলাউদ্দিন আকনজি এবং তার প্রতিবেশী তারা মিয়ার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১৫ আগস্ট স্থানীয় সময় আড়াইটায় আল ফোরকান মসজিদ সংলগ্ন মিউনিসিপ্যাল পার্কে জানাজা অনুষ্ঠিত হয় বলে জানিয়েছে এনা।
জানাজার শুরুতে বক্তব্য রাখেন নিউইয়র্কের মেয়র বিল ডে ব্লাসিও। তিনি শোকার্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের শাস্তির আশ্বাস দেন।
তিনি বলেন, আমিও ন্যায় বিচার চাই। খুুনির শাস্তি চাই। আমি মনে করি নিউইয়র্ক এবং যুক্তরাষ্ট্রের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ মুসলিমরা। একজন মুসলমানের উপর হামলা মানে আমাদের বা আমার উপর হামলা। এই হামলা মেনে নেয়া যায় না।
তিনি আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে মসজিদ এবং মুসলমান অধ্যুষিত এলাকাগুলোকে নিরাপত্তা ও পুলিশের টহল বাড়ানোর আহবান জানান।
ইমাম আকনজি এবং তারা উদ্দিনের জানাজায় হাজার হাজার মানুষ অংশগ্রহণ করে। এত বড় জানাজা নিউইয়র্কে খুব বেশি দেখা যায় না। বাংলাদেশি কম্যুনিটির নেতৃবৃন্দ ছাড়াও এই জানাজায় মুসলিম কম্যুনিটির নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন। জানাজা পড়ান ইমাম মাওলানা আলাউদ্দিন আকনজির সন্তান ক্বারী মঈনুদ্দিন আকনজি এবং মোনাজাত করেন মাওলানা জালাল সিদ্দিকী।
জানাজা শেষে অংশগ্রহণকারীরা ‘উই ওয়ান্ট জাস্টিস’ স্লোগান দিতে দিতে ঘটনাস্থলে যায় খুনির শাস্তি দাবি করে।
জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক জানান, ইমাম আকনজির মরদেহ ১৬ জুলাই বাংলাদেশে পাঠানো হবে। তাকে দাফন করা হবে হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার পারিবারিক গোরস্তানে। আর তারাউদ্দিনের লাশ দাফন করা হয়েছে নিউইয়র্কের জালালাবাদ এসোসিয়েশনের গোরস্তানে।
নিউইয়র্ক পুলিশ কমিশনার বিল ব্রিটন জানিয়েছেন, ইমাম আকনজি ও তারা উদ্দিনের সন্দেহভাজন খুনিকে নিউইয়র্কেল ব্রুকলিন থেকে ১৫ আগস্ট গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now