শীর্ষ শিরোনাম
Home » খেলাধুলা » অধিনায়ক নিয়ে সিলেট জেলা ফুটবল দলে অসন্তোষ!

অধিনায়ক নিয়ে সিলেট জেলা ফুটবল দলে অসন্তোষ!

69140সিলেট রিপোর্ট: সিলেট জেলা ফুটবল দলের অধিনায়কত্ব নিয়ে অসন্তোষ বিরাজ করছে দলের অভ্যন্তরে। জাতীয় ফুটবলার ওয়াহেদ দলে থাকা স্বত্ত্বেও সামাদকে অধিনায়ক করা নিয়ে এ অসন্তোষ বিরাজমান। এমনকি সিনিয়র হিসেবে দলের গোলরক্ষক সুহেলকেও দেয়া হয়নি অধিনায়কত্বের দায়িত্ব। বিষয়টি নিয়ে সিলেট খেলোয়াড় কল্যাণ সমিতির পক্ষ থেকেও প্রশ্ন তোলা হয়েছে।
বর্তমানে দ্বিতীয় বিভাগীয় কমিশনার গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে খেলছে সিলেট জেলা ফুটবল দল। গতকাল বুধবার নিজেদের প্রথম ম্যাচে মৌলভীবাজার জেলা ফুটবলের দলের কাছে কোনঠাসা ছিল সিলেট জেলা দল। শেষ পর্যন্ত ম্যাচ জিতলেও খেলায় স্পষ্ট ছন্নছাড়া ভাব ছিল সিলেটের।

ওই ম্যাচে সিলেটের অধিনায়কত্বের দায়িত্ব দেয়া হয় ডিফেন্ডার সামাদকে। এ নিয়ে দলের বেশিরভাগ খেলোয়াড়দের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দেয়। জাতীয় দলের ফুটবলার ওয়াহেদ দলে থাকা স্বত্ত্বেও সামাদকে অধিনায়কত্ব দেয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলেন তারা। এছাড়া ওয়াহেদকে কোনো কারণে অধিনায়কত্ব দেয়া না হলে দলের সবচেয়ে সিনিয়র সুহেলকে কেন দায়িত্ব দেয়া হলো না- এ নিয়ে অসন্তোষ রয়েছে।

দলীয় অধিনায়কত্বের এই বিষয়টি নিয়ে সিলেট খেলোয়াড় কল্যাণ সমিতির পক্ষ থেকে প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। গতকাল বুধবার ম্যাচ শেষেই বিষয়টি সিলেট জেলা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার কর্তাব্যক্তিদের নজরে আনে খেলোয়াড় কল্যাণ সমিতি।

সিলেট খেলোয়াড় কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক গোলাম জাকারিয়া চৌধুরী শিপুল সিলেটভিউ২৪ডটকমকে বলেন, কোনো যুক্তিতেই সামাদকে জেলা দলের অধিনায়ক করার বিষয়টি মেনে নেয়া যায় না। আমরা শুনেছি, দলের ম্যানেজার এনামুল হক মুক্তা অধিনায়ক হিসেবে সামাদকে দায়িত্ব দিয়েছেন। কোচ অন্য কাউকে দায়িত্ব দেয়ার পক্ষে ছিলেন।

তিনি বলেন, মৌলভীবাজারের বিপক্ষে দলে তিন বিদেশি ফুটবলার খেলেছেন। তাদেরকে দলে রাখার ব্যয় বহন করেছেন সামাদ- এমনটাই শুনেছি আমরা। কিন্তু টাকার কাছে মানসম্মান বিসর্জন দেয়া তো উচিত নয়।

বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা হয়েছে জানিয়ে গোলাম জাকারিয়া চৌধুরী শিপলু বলেন, সংশ্লিষ্টরা বিষয়টি দেখবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন।

অধিনায়কত্বের বিষয়টি নিয়ে সিলেট জেলা ফুটবল দলের ম্যানেজার এনামুল হক মুক্তা সিলেটভিউ২৪ডটকমকে বলেন, কে অধিনায়কত্ব করলো এটি বড় কথা নয়, দলের জয়ই বড় কথা। আমরা একটা সুযোগ পেয়েছি দীর্ঘদিন পর মাঠে নামার, আমরা চ্যাম্পিয়ন হতে চাই।

তিনি বলেন, দীর্ঘ প্রায় ৩৪ বছর ধরে ক্রীড়াঙ্গনের সাথে জড়িত। কখনো লোভ করিনি, অন্যায়ের সাথে জড়িত হইনি, পক্ষপাতিত্ব করিনি।

‘দলের সবচেয়ে সিনিয়র হিসেবে সুহেলেরই অধিনায়কত্ব পাওয়া উচিত’ মন্তব্য করে তিনি বলেন, বিষয়টি আসলে সামান্য ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now