শীর্ষ শিরোনাম
Home » জাতীয় » সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ৩ লক্ষ কওমী ছাত্র-শিক্ষক রাজপথে, নজিরবিহীন মানববন্ধন পালিত

সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ৩ লক্ষ কওমী ছাত্র-শিক্ষক রাজপথে, নজিরবিহীন মানববন্ধন পালিত

manab-bifaq-sylhetreport1-9শাহিদ হাতিমী/রেজাউল কারীম- সিলেট রিপোর্ট: বলতেগেলে নজিরবিহীন মাবনবন্ধন হলো রাজধানীতে। ঢাকায় কওমি শিক্ষার্থীদের জঙ্গিবাদীবিরোধী ইতিহাসের দীর্ঘ মানববন্ধন শান্তিপূর্ণভাবে সমাপ্ত হয়েছে। আজ ১লা সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টায় শুরু হয়ে বেলা১১ টা পর্যন্ত চলে কওমি মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ড বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ এর ডাকে ও ঢাকা মহানগরীর সকল কাওমী মাদরাসাগুলোর অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হয় এ মানববন্ধন। মানববন্ধনে ঢাকা মহানগরীর প্রায় ৩ লক্ষ কওমি শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেছেন বলে জানা গেছে। এর আগে মানববন্ধন সফলের লক্ষ্যে সংগঠনের শীর্ষ আলেমদের পক্ষ থেকে মানববন্ধনে আড়াই লক্ষাধিক লোক অংশগ্রহণের আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়।
৪৫ কিলোমিটার দীর্ঘ ঐতিহাসিক এ মানববন্ধনে ২০ হাজার ফেস্টুন এবং ৫ হাজার ব্যানার ব্যবহৃত হয়। ঢাকার সব কওমি মাদরাসা স্বতস্ফূর্তভাবে এই মানববন্ধনে অংশ নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন আমাদের প্রতিনিধিগণ।
মানববন্ধনের স্বেচ্ছাসেবক জিম্মাদার বারিধারা মাদরাসার শিক্ষক মুফতি আল আমীন কাসেমী বলেন, আমরা মানববন্ধন সফলের লক্ষ্যে ২০ হাজার স্বেচ্ছাসেবক তৈরি করেছি। যারা বিভিন্ন পয়েন্টে থেকে দায়িত্ব পালন করবে।
মানববন্ধনের উত্তরার জিম্মাদার মাওলানা নেয়ামতুল্লাহ আমিন জানান, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিরোধী এটি হবে অন্যরকম পদক্ষেপ। মানববন্ধন পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন বারিধারা মাদরাসার প্রিন্সিপাল ও বেফাকের সহ সভাপতি মাওলানা নূর হোসাইন কাসেমী। তিনি বলেন, আমরা বৃহৎ একটি শক্তি বৃহৎভাবে দেশ ও সরকারকে জানাতেই চাই এই জঙ্গিবাদ ইসলাম বিরোধী। এটি কোনোভাবেই ইসলাম সমর্থন করে না। আজকের মানববন্ধনে আবারো প্রমানিত হয়েছে যে এদেশের কওমী মাদরাসার শিক্ষক-শিক্ষাথীগন সমাজের বিশাল অংশ ,তাই তাদের বাদ দিয়ে জাতীয় শিক্ষানীতি জনগন মেনে নিবেনা। একই সাথে আমরা পরিস্কার ভাবে বলতেচাই-কওমী ছাত্র-শিক্ষকগন সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে। আমরা সন্ত্রাসজঙ্গিবাদ নির্মূল করতে জাতীয় শিক্ষানীতিকে আরো সংস্কারের আহবান জানাই।
আল্লামা কাসেমী বলেন, কওমী শিক্ষার স্বকীয়তা বজায় রেখেই আমরা রাষ্ট্রিয় মর্যাদাপেতে চাই। কারো করোনায় নয়,আমরা আমাদের ইতিহাস-ঐতিহ্যের আলোকেই স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি। উপমহাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে সবচাইতে বেশী ভূমিকা আমাদের আকাবেরদের। তিনি অপপ্রচারে কান না দিয়ে নিজেদের কাজ নিজেরাই করে যাওয়ার আহবান জানান।
ইতিহাসের দীর্ঘ এ মানববন্ধন বিষয়ে বেফাকের মহাসচিব মাওলানা আব্দুল জব্বার বলেন, আমরা কওমি মাদরাসার পক্ষ থেকে দেশ ও সরকারকে জানাতে চাই ইসলাম জঙ্গিবাদ সমর্থন করেন না। আমরা জঙ্গিবাদের বিপক্ষে। এটি একটি অরাজনৈতিক ও শান্তিপূর্ণ মানববন্ধন বলেও জানান তিনি।
বেফাকের যুগ্ন মহাসচিব মুফতি মাহফুজুল হক বলেন, কওমী মাদরাসা নিয়ন্ত্রণের সরকারি চক্রান্তের বিরুদ্ধে বেফাকের শক্তি প্রদর্শন এর অভ্যন্তরীণ উদ্দেশ্য। আমরা আশাকরি আজকের কর্মসুচির পরে সরকার কওমী মাদরাসার প্রতি আর র্দুবল ভাববেননা।

এর আগে বেফাকের সভাপতি আল্লামা শাহ আহমদ শফী সবাইকে মানববন্ধনে অংশ নিয়ে মানববন্ধন সফল করার আহবান জানান।

মাবনবন্ধনের বিভিন্ন স্পটে মাদরাসার শীর্ষ উলামায়ে কেরাম বক্তব্য রাখেন। বক্তারা বলেন, দীন ইসলামকে ‘ইয়াহুদী-নাসারাদের কথিত অপবাদ ও চক্রান্ত থেকে মুক্তকরণে’ ঐতিহাসিক ৪০কিলোমিটার (সদরঘাট টু গাজীপুর চৌরাস্তা) ব্যাপি বেফাকের উদ্দোগে আজকের মানববন্ধন, যুগ যুগ ধরে এদেশের জনতাকে একটি স্পষ্ট মেসেজ প্রদান করে যাবে যে, ইসলামের সাথে সন্ত্রাসের কোন সম্পর্ক নেই। বরং ইসলামের জিহাদই সন্ত্রাস নির্মূলের জন্য। সরকার যদি সন্ত্রাস নির্মূলে আন্তরিক হয়ে থাকে তবে উলামায়ে কেরামগণের পরামর্শ “শিক্ষার সর্বস্তরে ইসলামী শিক্ষা
বাস্তবায়ন করুন”কে বাস্তবায়িত করুক। নতুবা সুস্থ স্থানে মলম লাগানোর নামান্তর হবে। আমি মনে করি শুধু সাম্প্রতিক গুলশান-শোলাকিয়ার হামলাগুলোই সন্ত্রাস নয় ; কলেজ ভার্সিটির ক্যম্পাসে শিক্ষার্থীদের অস্ত্রের ঝনঝনানি ,খুন, মারামারি, হানাহানি, গুম, হত্যা এসবও সন্ত্রাস। এগুলো নির্মূলেও সরকারকে আন্তরিক হয়ে কাজ করতে হবে। এজন্য প্রয়োজন এসব শিক্ষার্থীদের কাছে ইসলামের শিক্ষা পৌছানো। নতুবা দেশের সর্বজন শ্রদ্ধেও উলামায়ে কেরামদের এসব আন্দোলন,সচেতনতা
সৃষ্টি বিফলে যাবে।
সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরোদ্ধে আয়োজিত এ মানববন্ধন কর্মসূচী ঢাকা মহানগরীর ৯টি স্পটে পালিত হয়।স্পটগুলোর নাম, দায়িত্বশীল ও সংশ্লিষ্ট মাদরাসাগুলোর তালিকা দেওয়া হলো-
১-সদরঘাট টু জিরো পয়েন্ট
১। মাওলানা আব্দুল কুদ্দুছ
২। মুফতী নূরুল আমীন
১। ফরিদাবাদ মাদরাসা
২। ঢালকানগর মাদরাসা
৩। জামালুল কুরআন মাদরাসা
৪। তাঁতী বাজার মাদরাসা ও
অন্যান্য মাদরাসাসমূহ
২-
জিরো পয়েন্ট টু কাকরাইল মোড়
১। মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী
২। মাওলানা সাইফুল ইসলাম
১। লালবাগ
২। ইসলামবাগ
৩। কামরাঙ্গীরচর
৪। বড়কাটারা
৫। ফয়জুল উলূম ও
অন্যান্য মাদরাসাসমূহ

কাকরাইল মোড় টু মালিবাগ রেল ক্রসিং
১। মাওলানা আলমগীর
২। মাওলানা জাহিদ
৩। মাওলানা আহমদ আলী
১। মানিকনগর
২। ওয়াবদা
৩। পীরজঙ্গী
৪। খিলগাঁও ও
অন্যান্য মাদরাসাসমূহ

মালিবাগ রেল ক্রসিং টু রামপুরা ব্রিজ
১। মাওলানা আব্দুর রব ইউসুফী
২। মাওলানা আনোয়ার শাহ
৩। মাওলানা আবু মুছা
১। মালিবাগ
২। চৌধুরীপাড়া
৩। নূরবাগ
৪। রামপুরা ও
অন্যান্য মাদরাসাসমূহ

রামপুরা ব্রীজ টু নতুন বাজার
১। মাওলানা আবুল হাসান
২। মাওলানা মকবূল হোসাইন
৩। মাওলানা ফয়সাল
৪। মুফতী আমজাদ হোসাইন
১। মধ্যবাড্ডা
২। মুহাম্মদপুর এলাকার
মাদরাসাসমূহ

নতুনবাজার টু কুড়িল বিশ্বরোড
১। মাওলানা মকবূল হোসাইন
২। মুফতী আমজাদ হোসাইন
৩। মাওলানা ফয়সাল
১। বারিধারা
২। বসুন্ধরা
৩। মারকাযু শায়খ যাকারিয়া ও
অন্যান্য মাদরাসাসমূহ

কুড়িল বিশ্বরোড টু ইয়ারপোর্ট
১। আল্লামা মোস্তফা আজদ
২। মাওলানা মোহাম্মদ শফী
৩। মাওলানা নূর মোহাম্মদ
৪। মাওলানা লোকমান মাজহারী
৫। মাওলানা আবুল বাশার
জামিয়া হোসাইনিয়া ইসলামিয়া আরজাবাদ সহ বৃহত্তর মিরপুরের সকল মাদরাসাসমূহ
৮-
ইয়ারপোর্ট টু আব্দুল্লাহপুর
১। মাওলানা আনীসুর রহমান
২। মাওলানা আকরাম
৩। মাওলানা আবূ ইউসুফ
৪। মাওলানা আব্দুল ওয়াজেদ
৫। মাওলানা রুহুল আমীন
১। বাবুস সালাম
২। দক্ষিন খান
৩। গাওয়াইর ও অন্যান্য মাদরাসাসমূহ।
৯-
আব্দুল্লাহপুর টু জয়দেবপুর চৌরাস্তা
১। মুফতী মাসউদুল করীম
২। মাওলানা জাকির
টঙ্গী থানার সকল মাদরাসাসমূহ

ধর্মহীন শিক্ষানীতি সন্ত্রাসবাদের জন্ম দেয় বলে মন্তব্য করেছেন কওমি মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ড বেফাকের সভাপতি আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী।

তিনি বলেন, ধর্মহীন শিক্ষানীতি সন্ত্রাসবাদের জন্ম দেয়। সুতরাং শিক্ষানীতি থেকে ধর্মহীনতা বাদ দিতে হবে। ইসলামী শিক্ষানীতি ও শিক্ষাআইনের বাস্তবায়ন করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, সন্ত্রাস ও নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে আলেম সমাজ পূর্বে থেকেই সেচ্চার ছিলো। আজকের এ মানববন্ধন কর্মনূচীর মাধ্যমে আমরা আরো স্পষ্ট করতে চাই, ইসলাম কখনোই সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদকে সমর্থন করেনা।

আজ বেলা ১০ টা ১১ টা পর্যন্ত জঙ্গিবাদবিরোধী বেফাকের আয়োজনে ইতিহাসের দীর্ঘ মানববন্ধনে সভাপতির বক্তব্যে আল্লামা নূর হোছাইন কাসেমী এসব কথা বলেন।
উক্ত কর্মসূচী বাস্তবায়নের মুল কারিগর ছিলেন মানববন্ধন কর্মসূচী বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক ও বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ এর অন্যতম সহ-সভাপতি আল্লামা নূর হোছাইন কাসেমী কর্মসচি সফল করায় সকলকে আন্তরিক মোবারকবাদ জানান।manab-bifaq1

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now