শীর্ষ শিরোনাম
Home » নারী ও শিশু » বাংলাদেশি নারী নাজমা হত্যায় যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভ

বাংলাদেশি নারী নাজমা হত্যায় যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভ

najma_126555ডেস্ক রিপোর্ট: বাংলাদেশি নারী নাজমা খানম হত্যায় বিক্ষোভ করেছে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবাসী বাংলাদেশিরা। সেই সঙ্গে এই হত্যাকাণ্ডকে ‘হেট ক্রাইম’ উল্লেখ করে এর সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি করেছেন।
এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টার। এতে বলা হয়েছে, মুসলিম বিদ্বেষের কারণে একের পর এক হত্যা হচ্ছে। ভবিষ্যতে যেনো এই ধরনের ঘটনা আর না ঘটে, সেজন্য ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানানো হয়। এ সময় জনপ্রতিনিধিরা নাজমা হত্যার সঠিক বিচারের আশ্বাস দেন।

নাজমা খানমের মরদেহ দেশে আসছে আজ। স্থানীয় সময় শুক্রবার দুপুরে জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারে জানাজা শেষে মরদেহ দেশে পাঠানো হবে বলে তার স্বামী শামসুল আলম খান জানিয়েছেন। শরীয়তপুরেই নাজমাকে দাফন করা হবে।

নাজমাকে ছুরি মারার ঘটনা ‘ধর্মীয় বিদ্বেষমূলক’ কী না তা জানা না গেলেও নিউইয়র্ক পুলিশের হেইট ক্রাইম টাস্ক ফোর্স ঘটনা তদন্তে সহায়তা করছে বলে জানিয়েছেন নাজমার ঘনিষ্ঠ আত্মীয় কবির।

নিউইয়র্ক মুসলিম পুলিশ অফিসার অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য কবির বলেন, খালার কাছে নগদ টাকা, সেলফোন, ঘড়ি, স্বর্ণালঙ্কার সবই ছিল, কিন্তু দুর্বৃত্তরা কিছুই নেয়নি। এজন্য এ ঘটনাকে হেইট ক্রাইম বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, বুধবার রাতে নিউইয়র্কে নিজের বাড়ির সামনেই দুর্বৃত্তের হামলায় খুন হন নাজমা। স্ত্রীর চিৎকারে শামসুল আলম এগিয়ে গেলে হামলাকারীরা সটকে পড়েন। সঙ্গে সঙ্গে নাজমাকে জ্যামাইকা হাসপাতালে নেয়া হলেও তাকে বাঁচানো যায়নি।

এদিকে তিন সপ্তাহের ব্যবধানে ইমামসহ তিন বাংলাদেশি খুনের ঘটনায় প্রবাসীদের মধ্যে উদ্বেগ ও ভীতি ছড়িয়ে পড়েছে বলে জানিয়েছেন এশিয়ান-আমেরিকান ডেমোক্র্যাটিক ক্লাবের প্রেসিডেন্ট আকতার হোসেন বাদল।

কুইন্সের ওজনপার্কে গত ১৩ অগাস্ট ইমামসহ দুই বাংলাদেশি আলাউদ্দিন আকঞ্জি (৫৫) ও তার প্রতিবেশী তারা মিয়াকে গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। ওই ঘটনার ১৭ দিনের মধ্যে খুন হন বাংলাদেশি নারী নাজমা খানম।

ইমামসহ দুই বাংলাদেশি হত্যার মামলায় আটক অস্কার মরেল আদালতে নিজেকে নির্দোষ দাবি করেছেন। বৃহস্পতিবার কুইন্সের ক্রিমিনাল কোর্টে অস্কারকে হাজির করা হয়। এ সময় তার আইনজীবী অস্কারকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেয়ার আবেদন জানান।বিচারক আগামী ১৮ অক্টোবর এ মামলার শুনানির পরবর্তী দিন রেখেছেন।

এদিকে দুইদিন পেরিয়ে গেলেও নাজমা হত্যায় এখনো কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। হত্যাকাণ্ডের উদ্দেশ্যসহ অন্যান্য বিষয় জানতে আশপাশের সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করেছে নিউইয়র্ক পুলিশ। অন্ধকারের কারণে ফুটেজ থেকে হত্যাকারী শনাক্ত করা যাচ্ছে না। তবে নিহত নাজমা খানমের পাশ দিয়ে একজনকে হেঁটে যেতে দেখা গেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

পুলিশের বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো জানায়, সংগ্রহ করা ফুটেজে দেখা গেছে নাজমা একটি ব্যাগ হাতে জ্যামাইকার হিল সাইডের ১৬১ স্ট্রিট দিয়ে হেঁটে বাসায় যাচ্ছেন। অদূরেই ছিলেন তার স্বামী। কিছুটা পথ যাওয়ার পরই ছুরিকাঘাতের শিকার হন নাজমা। কিন্তু ঘুটঘুটে অন্ধকার হওয়ায় ঘাতককে দেখা যাচ্ছে না।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now