শীর্ষ শিরোনাম
Home » জাতীয় » পুলিশের বাধায় ফারাক্কা নিয়ে সংবাদ সম্মেলন পণ্ড

পুলিশের বাধায় ফারাক্কা নিয়ে সংবাদ সম্মেলন পণ্ড

rajshahi_126861ডেস্ক রিপোর্ট: গঙ্গা নদী থেকে পানি প্রত্যাহারে পশ্চিমবঙ্গে নির্মিত ফারাক্কা বাঁধ নিয়ে বিএনপিপন্থি প্রকৌশলীদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ-এ্যাব এর সংবাদ সম্মেলন পণ্ড হয়ে গেছে পুলিশের বাধায়। ‘ফারাক্কার কবল থেকে বাংলাদেশকে বাঁচানোর’ আহ্বান নিয়ে সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় নগরীর একটি রেস্টুরেন্টে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছিল।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পড়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ শাহীন শওকত। কিন্তু এ সময় বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহাদত হোসেন খানের নেতৃত্বে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় পুলিশের একটি দল। জানায়, এই সংবাদ সম্মেলন করা যাবে না। পরে কোনো বক্তব্য না দিয়েই চলে যেতে বাধ্য হন আয়োজকরা।

এর আগে পদ্মা নদীতে একটি লঞ্চে ফারাক্কা বাঁধ নিয়ে এই সংবাদ সম্মেলন করার কথা জানিয়েছিলেন আয়োজকরা। কিন্তু অনুমতি মেলেনি পুলিশের। পরে নগরীর ওই রেস্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে নগর পুলিশের মুখপাত্র ইফতে খায়ের আলম বলেন, ‘ফারাক্কার নামে তারা সরকার বিরোধী প্রচারণা চালাতেন বলে আমাদের কাছে তথ্য ছিল। এ জন্য সংবাদ সম্মেলন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।’
আগস্টের শেষ দিকে ফারাক্কা বাঁধের সবগুলো গেট খুলে দেয়ার পর বাংলাদেশে পদ্মায় পানিপ্রবাহ বেড়ে যায়। এক পর্যায়ে বিপদসীমার কাছাকাছি পৌঁছে যায় নদীর পানি। তবে শেষ পর্যন্ত বিপদসীমা ছাড়ায়নি পদ্মা।
সম্প্রতি ফারাক্কার সব কটি গেট খুলে দেয়ার পর পদ্মায় পানিপ্রবাহ বেড়ে যাওয়ার পর এই বাঁধটি নিয়ে নতুন করে আলোচনার শুরু হয়। গঙ্গা নদী থেকে পানি প্রত্যাহারের জন্য নির্মিত বাঁধটির কারণে ভারতের বিহারে বন্যা দেখা দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার। এই বাঁধটি অপসারণ করতে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দেখা করেন তিনি।
তবে এই বাঁধটি নিয়ে বাংলাদেশের গণমাধ্যমে প্রচার হওয়া বিভিন্ন খবর বিভ্রান্তিকর বলে দাবি করেছে ভারতীয় হাইকমিশন। এক বিবৃতিতে জানানো হয়, প্রতি বছর বর্ষাতে ফারাক্কার গেট খুলে দেয়া হয়। এটা নতুন কিছু নয়।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now