শীর্ষ শিরোনাম
Home » বিভিন্ন জেলা-উপজেলা » গোলাপগঞ্জে বলাৎকার ঘটনায় প্রধান শিক্ষক রনজিৎ গ্রেফতার

গোলাপগঞ্জে বলাৎকার ঘটনায় প্রধান শিক্ষক রনজিৎ গ্রেফতার

copy-of-092-300x113সিলেট রিপোর্ট:  সিলেটের গোলাপগঞ্জে ৫ম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রকে বলাৎকার করেছে প্রধান শিক্ষক। এমনকি বলাৎকারের দৃশ্যের ভিডিওচিত্র ধারণ করে তা ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় প্রধান শিক্ষক রনজিৎ সেনাপতিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়।

রনজিৎ সেনাপতি উপজেলার ভাদেশ্বর নালিউরি এলাকার মৃত সত্যপ্রসন্ন সেনাপতির ছেলে। সে গোলাপগঞ্জ কিন্ডার গার্টেন এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক। দীর্ঘদিন থেকে শিক্ষতার আড়ালে নানা অপকর্মের সঙ্গে লিপ্ত থাকার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

গত ২০ আগস্ট উপজেলার ভাদেশ্বরের মাইজভাগ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। তবে বিষয়টি ধামাচাপা দিতে একটি মহল উঠেপড়ে লাগে।

এদিকে এ ঘটনা জানাজানি হলে গোলাপগঞ্জ উপজেলাজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়। বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন অভিভাবকরা। তারা ওই শিক্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছেন।

জানা যায়, গত ২০ আগস্ট উপজেলার ভাদেশ্বরে মাইজভাগ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রণজিৎ সেনাপতি ওই স্কুলের ৫ম শ্রেণির এক ছাত্রকে কৌশলে পাশের একটি কক্ষে নিয়ে যায়। সেখানে ওই ছাত্রকে বলাৎকার করে সে।

ওই ছাত্রের চিৎকার শুনে স্কুলের নাইটগার্ড শাবলু মিয়া বলাৎকারের দৃশ্য মোবাইলফোনে ভিডিও করে। পরে ওই ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়।

এ ঘটনার ভিডিওটি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়লে গোটা উপজেলায় তোলপাড় শুরু হয়। বলাৎকারের এ ঘটনার পর ওই পরিবারের লোকজন লজ্জায় মুখ খুলতে না চাইলেও তৎপর হয়ে উঠে এলাকাবাসী।

স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সহ-সভাপতি তাহের উদ্দিন রনজিৎ সেনাপতি ও শাবলু মিয়াকে আসামি করে গোলাপগঞ্জ মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

শুক্রবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ উপজেলা সদরের চৌমুহনী থেকে তাকে গ্রেফতার করে। তবে শাবলুকে এখনো গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

এ বিষয়ে তাহের উদ্দিন বলেন, ঘটনার শিকার ছাত্রের পরিবারের লোকজন মানসিকভাবে খুবই বিপর্যস্ত। তাই আমি স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সহ-সভপতি হিসেবে মামলা করেছি।

গোলাপগঞ্জ মডেল থানার ওসি একেএম ফজলুল হক শিবলী যুগান্তরকে বলেন, অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক রনজিৎ সেনাপতিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শনিবার তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

নাইটগার্ডকে গ্রেফতারের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে তিনি জানান। তথ্যসূত্রঃ যুগান্তর

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now