শীর্ষ শিরোনাম
Home » জাতীয় » সীমান্তে আবারো দুই বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা করলো ভারতীয় বাহিনী

সীমান্তে আবারো দুই বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা করলো ভারতীয় বাহিনী

bsf_128970
ডেস্ক রিপোর্ট: বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে দুই বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ। এর মধ্যে ঝিনাইদহের মহেশপুরের বাঘাডাঙ্গা সীমান্তে নিহত হন জসিম ম-ল এবং কুড়িগ্রামের রৌমারীর গয়টারপাড় সীমান্তে নিহত হন দুখু মিয়া। তারা দুজনই ভারত থেকে গরু আনতে ওপারে গিয়েছিলেন বলে জানিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। আজ শুক্রবার ভোররাতে  ভারতীয় অংশে এই গুলির ঘটনা ঘটে। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) পক্ষ থেকে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

বাংলাদেশ ভারত সীমান্তে বিএসএফের গুলির ঘটনা প্রায় নিয়মিত হয়ে উঠেছে। দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী এবং সরকারি পর্যায়ে একাধিকবার এ নিয়ে বৈঠকে আশ্বাস দেয়া হলেও সীমান্ত হত্যা কমছে না। এই হত্যা শূন্যে নামিয়ে আনতে বারবার অঙ্গীকার করেও কথা রাখছে না বিএসএফ। প্রাণহানি ঠেকাতে বুলেটের বদলে রাবার বুলেট ব্যবহারের অঙ্গীকারও রাখা হয়নি।

সীমান্তে হত্যার বেশিরভাগ ঘটনাই ঘটে গরু চোরাচালানকে ঘিরে। এই চোরাচালান রোধে ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কঠোর হওয়ার ঘোষণা দিলেও পুরোপুরি বন্ধ হয়নি তা। বিজিবিও একাধিকবার গরু চোরাচালান বন্ধের তাগিদ দিলেও চোরাই পথে আনা গরু আবার নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকার বিনিময়ে বৈধ করার প্রক্রিয়া চালু রেখেছে বাংলাদেশ।

সীমান্ত হত্যা নিয়ে বাংলাদেশের পাশাপাশি ভারতেও সোচ্চার মানবাধিকার বিষয়ক বিভিন্ন সংস্থা। ভারতীয় সুপ্রিমকোর্টে মামলাও করেছে একাধিক সংগঠন।

ঝিনাইদহ সীমান্তে হত্যা

ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার বাঘাডাঙ্গা সীমান্তে নিহত হয়েছেন জসিম ম-ল। তার বাড়ি তার বাড়ি চুয়াডাঙ্গা জেলার দর্শনাতে।

ঝিনাইদহের খালিশপুরে ৫৮ বিজিবি ব্যাটালিয়ানের পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল তাজুল ইসলাম জানান, গত রাতে বাংলাদেশি জসিম ম-ল সীমান্ত পার হয়ে ভারতের আটশ গজ ভেতরে হাজরাখাল এলাকায় প্রবেশ করেন। এ সময় বিএসএফের  নদীয়া জেলার হাজরাখাল ক্যাম্পের একটি টহল দলের সামনে পড়েন তিনি। বিএসএফ তাকে থামতে বলার পর পালানোর চেষ্টা করেন জসিম ম-ল। এরপর তাকে গুলি করে বিএসএফ।

বিজিবি কমান্ডার লেন, আহত অবস্থায় জসিমকে উদ্ধার করে ভারতের একটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত ঘোষনা করেন। তার মরদেহ ভারতের হাসখালী থানায় রয়েছে। ময়নাতদন্তের পর পতাকা মিছিলের মাধ্যমে তার মরদেহ পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে ফেরত দেয়া হবে বলে জানান বিজিবি কমান্ডার। এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে বিএসএফকে চিঠি দিয়েছে বিজিবি।

কুড়িগ্রাম সীমান্তে হত্যা

ভোরে জেলার রৌমারী উপজেলার গয়টারপাড় সীমান্তে ভারত থেকে গরু পাচারের সময় বিএসএফের গুলিতে প্রাণ হারান বাংলাদেশি দুখু মিয়া। সীমান্তের ১০৬১ আন্তর্জাতিক সীমান্ত পিলারের কাছে এ ঘটনা ঘটে।

দুখু মিয়ার বাড়ি রৌমারীর শৌলমারী ইউনিয়নের ফকিরপাড়া গ্রামে। এ ঘটনায় বিজিবির গয়টাপাড়া  ক্যাম্পের পক্ষ থেকে কড়া প্রতিবাদ ও পতাকা বৈঠকের প্রস্তাব জানিয়ে চিঠি দিলেও এখন পর্যন্ত কোন জবাব দেয়নি বিএসএফ।

বিজিবির জামালপুরস্থ  ৩৫ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক  লেফটেন্যান্ট কর্নেল রফিকুল হাসান ঘটনাটি নিশ্চিত করেছেন।
সিলেট রিপোর্ট/সু-ঢাটা ২৩-০৯-২০১৬

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now