শীর্ষ শিরোনাম
Home » খেলাধুলা » তামিম-রিয়াদ-সাকিবের ব্যাটে টাইগারদের ২৬৫

তামিম-রিয়াদ-সাকিবের ব্যাটে টাইগারদের ২৬৫

image_165821_0রেজওয়ান আহমদ: বাংলাদেশ-আফগানিস্তান তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় টাইগার দলপতি মাশরাফি বিন মর্তুজা। ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশের ১০ মাস বিরতির ইতি হলো এ ম্যাচ দিয়েই। ব্যাটিংয়ে নেমে বাংলাদেশ নির্ধারিত ৫০ ওভারে সবক’টি উইকেট হারিয়ে ২৬৫ রান সংগ্রহ করে।

রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে দিন-রাত্রির এ ম্যাচটি শুরু হয় দুপুর আড়াইটায়। দীর্ঘ বিরতির চ্যালেঞ্জ উড়িয়ে দুরন্ত শুরুর আশা নিয়ে মাঠে নামে টাইগাররা। তামিম-সাকিব-মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে আফগানদের ২৬৬ রানের টার্গেট ছুঁড়ে দেয় টাইগাররা।

ইনিংসের প্রথম ওভারে দৌলত জাদরানের করা বলে পুল করতে গিয়ে নুরির হাতে মিডউইকেটে ধরা পড়েন সৌম্য। বিদায়ের আগে তার ব্যাট থেকে কোনো রান আসেনি। ১৮তম ওভারে মোহাম্মদ নবীর বলে বোল্ড হন ইমরুল। বিদায়ের আগে ৫৩ বল মোকাবেলা করে ৬টি চারের সাহায্যে ৩৭ রান করেন তিনি। আর তামিমের সঙ্গে ৮৩ রানের জুটিও গড়েন ইমরুল।

হাতের ইনজুরি থেকে মাত্রই মুক্তি পেয়েছেন টাইগারদের ওপেনার তামিম ইকবাল। তবে, মাঠের খেলায় বোঝা যায়নি তার ছিটেফোটাও। দুর্দান্ত ব্যাটিং করে টাইগারদের রানের চাকা বেশ সচল রাখেন এই বাঁহাতি। ইনিংসের ৩৬তম ওভারে মিরওয়াইস আশরাফের বলে নবীন উল হকের তালুবন্দি হওয়ার আগে ৯৮ বলে ৯টি বাউন্ডারিতে ব্যক্তিগত ৮০ রান করেন তামিম। ৬৩ বলে নিজের অর্ধশতকের দেখা পান তামিম। এটি ওয়ানডেতে তার ৩৩তম হাফ-সেঞ্চুরি।

এর আগে দলীয় এক রানের মাথায় বিদায় নেন আরেক ওপেনার সৌম্য সরকার। আর দলীয় ৮৪ রানের মাথায় বিদায় নেন ইমরুল কায়েস। অর্ধশতক হাঁকানো ওপেনার তামিমের সঙ্গে জুটি গড়ে উইকেটে ছিলেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। এই দুই ব্যাটসম্যান স্কোরবোর্ডে আরও ৭৯ রান যোগ করেন।

প্রথম পাওয়ার প্লে’তে টাইগারদের এক উইকেট হারিয়ে আসে ৫০ রান। দলীয় শতক আসে ২১.৫ ওভারে। ৪০.১ ওভারে দলীয় ২০০ রান আসে টাইগারদের।

তামিমের বিদায়ের পরও দারুণ ব্যাট করতে থাকেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। ৬৫ বলে নিজের অর্ধশতকের দেখা পান রিয়াদ। এটি ওয়ানডেতে তার ১৫তম হাফ-সেঞ্চুরি। তবে, ৪১তম ওভারে বিদায় নেন ৬২ রান করা রিয়াদ। তার ৭৪ বলের ইনিংসে ছিল ৫টি চার আর দুটি ছক্কার মার। মোহাম্মদ নবীর বলে বিদায় নেওয়ার আগে সাকিবের সঙ্গে ৪০ রানের জুটি গড়েন রিয়াদ।

অর্ধশতক হাঁকানো মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের বিদায়ের পর দ্রুতই বিদায় নেন মুশফিক। রশিদ খানের মিডলস্টাম্পের বল টেনে মারতে গিয়ে বোল্ড হন ১১ বলে ৬ রান করা মুশফিক। ৪৫তম ওভারে রশিদ খানের বলে এলবির ফাঁদে পড়ে বিদায় নেন সাব্বির রহমান (২ রান)।

৪৮তম ওভারে বিদায় নেন সাকিব। বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডারের ব্যাট থেকে আসে ৪৮ রান। ৪০ বলে তিনটি চারের সাহায্যে সাকিব তার ইনিংসটি সাজান ৪০ বলে। দৌলত জাদরানের বলে নাজিবুল্লাহর হাতে ধরা পড়েন তিনি। ৪৯তম ওভারে বিদায় নেন মাশরাফি (৪)। শেষ ওভারে বোল্ড হন তাসকিন (২)। ইনিংসের শেষ বলে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তাইজুল (১১ রান)।

বাংলাদেশ একাদশ:
তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), সাব্বির রহমান, মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), তাইজুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, ইমরুল কায়েস ও রুবেল হোসেন।

আফগানিস্তান একাদশ:
আসগর স্তানিকজাই (অধিনায়ক), দৌলত জাদরান, হাসমত উল্লাহ শহীদি, মিরওয়াইস আশরাফ, মোহাম্মদ নবী, মোহাম্মদ শাহজাদ, নাজিবুল্লাহ জাদরান, নবীন-উল-হক, রহমত শাহ, রশিদ খান, সাবির নুরি।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now