শীর্ষ শিরোনাম
Home » আর্ন্তজাতিক » ‘দারুল উলুম নাদওয়াতুল উলামা’য় দোয়া চাইলেন রাহুল গান্ধী

‘দারুল উলুম নাদওয়াতুল উলামা’য় দোয়া চাইলেন রাহুল গান্ধী

rahulgandi-nadwa-25-9-16
ডেস্ক রিপোর্ট:  ভারতের প্রখ্যাত ইসলামী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ‘দারুল উলুম নাদওয়াতুল উলামা’য় দোয়া চাইতে গেলেন দেশের প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেসের ভাইস প্রেসিডেন্ট রাহুল গান্ধী। উত্তর প্রদেশ সফর করার সময় শুক্রবার রাহুল গান্ধী ‘দারুল উলুম নাদওয়াতুল উলামা’য় ‘অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল’বোর্ড’-এর সভাপতি মাওলানা সাইয়্যেদ রাবে হাসান নাদভি’র কাছে দোয়া প্রার্থনা করেন।

রাহুল গান্ধী এদিন লক্ষনৌতে একটি গেস্ট হাউসে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ইসলামী চিন্তাবিদ ভারতের প্রখ্যাত শিয়া আলেম ড. মাওলানা কালবে সাদিকের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন। রাহুল মাওলানা কালবে সাদিককে দিল্লি আসার আমন্ত্রণ জানান। মাওলানা কালবে সাদিক কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীকে দেশ থেকে দুর্নীতি, মুদ্রাস্ফীতি, অজ্ঞতা এবং দরিদ্রতা দূর করার কথা বলেন।

রাহুল গান্ধী নাদওয়াতুল উলামায় পৌঁছানোর সময় তার সঙ্গে কংগ্রেসের সিনিয়র নেতা গুলাম নবী আজাদ, রাজ্য প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি রাজবব্বর, দিল্লির সাবেক মুখ্যমন্ত্রী শীলা দীক্ষিত প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

নাদওয়াতুল উলামার মহাসচিব মাওলানা হামজা নাদভি বলেন, ‘এখানে প্রায় ১০ মিনিট কথা বলেন রাহুল। রাহুল বলেন, আপনারা আমার জন্য দোয়া করুন। মাওলানা রাবে হাসান নাদভি তাকে বলেন, যারাই দেশের খেদমত করেন আমরা তাদের জন্য দোয়া করি। দেশের উন্নয়ন হলে সকলের উন্নতি হবে।’

মাওলানা হামজা নাদভি বলেন, ‘আলোচনায় রাজ্যের পরিস্থিতির কথা উঠে আসে। মুসলিম ভোটের জন্য রাহুল চেষ্টা চালাচ্ছেন কি না? এই প্রশ্নের উত্তরে মাওলানা হামজা বলেন, ‘এটা হতে পারে, সমস্ত রাজনৈতিক দলের নেতারা এ রকম করে থাকেন। নাদওয়ার দরজা সকলের জন্য খোলা রয়েছে, যদিও এটা রাজনৈতিক কেন্দ্র নয়।’

মাওলানা রাবে হাসান নাদভি রাহুল গান্ধীর কাছে তার মা সোনিয়া গান্ধীর কুশল জানতে চান। রাহুল উত্তর প্রদেশের কংগ্রেস সভাপতি রাজবব্বরকে মাওলানার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিলে মাওলানা তাকে অভিনন্দন জানান। এ সময় রাহুল গান্ধীকে ‘রাহবারে ইনসানিয়াত’ এবং ‘পয়গম্বর-এ ইসলাম’ নামক দুটি বই উপহার দেয়া হয়।

রাহুল গান্ধীকে দেখার জন্য নাদওয়ার ক্যাম্পাসের মধ্যে ছাত্ররা ব্যাপক ভিড় জমান। তার কাছে পৌঁছানোর জন্য একপ্রকার হুড়োহুড়ি শুরু হয়। সেখান থেকে ফেরার সময় কিছু ছাত্রের সঙ্গে সেলফিও তোলেন রাহুল গান্ধী।

রাহুল এ দিন লক্ষনৌতে এক সমাবেশে বলেন, ‘আরএসএস হিন্দু এবং মুসলিমের নামে আমাদের বিভক্ত করতে চাচ্ছে। মোদি নির্বাচন এলেই উন্নয়নের কথা বলেন। তিন বছর ধরে ক্ষমতায় থেকেও মোদিজি এমন কোনো কাজ করেননি যাতে কৃষকের কোনো ফায়দা হয়।’

তিনি বলেন, আমরা (ইউপিএ সরকারের আমলে) ১ লাখ ১০ হাজার কোটি টাকা কৃষকের ঋণ মওকুফ করেছিলাম। মোদিজি এ কথা লোকদের বলেন না। উত্তর প্রদেশে কংগ্রেস সরকার ক্ষমতায় এলে ১০ দিনের মধ্যে কৃষকের ঋণ মওকুফ করে দেয়া হবে বলে প্রতিশ্রুতি দেন রাহুল।—পার্সটুডে

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now