শীর্ষ শিরোনাম
Home » বিভিন্ন জেলা-উপজেলা » কানাইঘাটে সাম্প্রতিক সময়ে ২ হত্যাকান্ড, সামাজিক অধঃপতনই দায়ী !

কানাইঘাটে সাম্প্রতিক সময়ে ২ হত্যাকান্ড, সামাজিক অধঃপতনই দায়ী !

imagesকানাইঘাট প্রতিনিধি: একসপ্তাহের ব্যবধানে কানাইঘাটে  দু’টি লোমহর্ষক হত্যাকান্ডের ঘটনায় জনমনে নানা ধরনের প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। সামাজিক অধঃপতনের কারনে এ ধরনের হত্যাকান্ড সংঘটিত হচ্ছে বলে সচেতন মহল মনে করেন। সম্প্রতি কানাইঘাটে বেশ কয়েকটি নেতিবাচক ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ সর্বত্র আলোচনা ও সমালোচনা চলছে।
গত ১৯ সেপ্টেম্বর নারীসংক্রান্ত ঘটনার জের ধরে নৃশংস হত্যাকান্ডের স্বীকার হয় দর্জি ইমরান হোসেন। খুনিরা তাকে পৈশাচিক কায়দায় হত্যা করে লাশ ঘুম করার উদ্দেশ্যে পুকুরে ডুবিয়ে রাখে।
এ ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই গত সোমবার উপজেলার লক্ষীপ্রসাদ পূর্ব ইউপির দূর্গম পাহাড়ী এলাকায় গণধর্ষণের পর ১১ বৎসরের এক কিশোরীকে নৃশংস হত্যাকান্ডের ঘটনায় সর্বত্র তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। যেভাবে দু’টি হত্যাকান্ড সংঘটিত হয়েছে তা পেশাদার খুনীদেরও হার মানিয়েছে। জানাগেছে, গত সোমবার উপজেলার লক্ষীপ্রসাদ পূর্ব ইউপির এরালীগুল গ্রামের তেরা মিয়ার মেয়ে স্থানীয় স্কুলের ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী সুলতানা বেগম (১১) কে গণধর্ষণের পর ধর্ষণকারীরা যেভাবে তাকে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করে লাশ আড়াইশ ফুট উপরে একটি টিলায় মাটি চাপা দিয়ে গুম করে রাখে। এ নির্মম পৈশাচিক হত্যাকান্ডের ঘটনায় এলাকার মানুষ হতবাক হয়ে পড়েছেন। খুনীদের যেন দ্রæত আইনী প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ফাঁসিতে ঝুলানো হয় তাদের একটাই দাবী।
এদিকে সুলতানা বেগমের পৈশাচিক হত্যাকান্ডের ঘটনার সাথে জড়িত গ্রেফতারকৃত আবুল আহমদ, রাসেল ও ছাদেক শুক্রবার সিলেটের চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে সুলতানাকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনা স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় বিজ্ঞ আদালতের কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে বলে থানার অফিসার ইনচার্জ মো. হুমায়ুন কবির জানিয়েছেন। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী নিহত সুলতানার সহপাঠী ফারহানা বেগমেরও ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী নেয় আদালত।
এলাকাবাসীর সহযোগিতায় পুলিশ ধর্ষণ ও হত্যাকারী বড়খেওড় গ্রামের আবুল আহমদ (২৫), রাসেল (২৫) ও ছাদেক হোসেন (২৬) কে গ্রেফতার করা হয়েছে। তারা হত্যাকান্ডের কথা স্বীকার করেছে। তিনি নিহতের পরিবার ও এলাকাবাসীকে আশ্বস্ত করে আরো বলেন, কম সময়ের মধ্যে সুলতানা হত্যা মামলার চার্জশিট আদালতে দেওয়া হবে। খুনীদের যাতে যথাযথ শাস্তি হয় ও ভবিষ্যতে এ এলাকায় এ ধরনের জঘন্যতম ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে পুলিশ সেভাবেই দ্রুততার সাথে আইনী পদক্ষেপ নেবে।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now