শীর্ষ শিরোনাম
Home » জাতীয় » ‘অবৈধ চ্যানেল দুটি সম্প্রচার হচ্ছিল সিঙ্গাপুর থেকে’

‘অবৈধ চ্যানেল দুটি সম্প্রচার হচ্ছিল সিঙ্গাপুর থেকে’

image-1336ডেস্ক রিপোর্ট: বাংলা এইচ ও নেহা টেলিভিশন নামে দুটি চ্যানেল সিঙ্গাপুর থেকে অবৈধভাবে সম্প্রচার হচ্ছিল বলে জানিয়েছে র‌্যাব। চ্যানেল দুটি দেশের ৩৪টি জেলায় সম্প্রচার হচ্ছিল। র‌্যাবের অভিযানে চ্যানেল দুটির সঙ্গে জড়িত চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উত্তর বাড্ডার পলাশ টাওয়ারের দ্বিতীয় তলায় টেলিভিশন দুইটির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যমা শাখার পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান।

র‌্যাবের অভিযানে গ্রেপ্তার চারজন হলেন শামীম আহমেদ, মো. ইব্রাহীম হোসেন, বোরহান উদ্দিন ও রাশেদ হোসেন মুন্না।

কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান বলেন, ‘পাইরেসির বিরুদ্ধে আমরা দীর্ঘদিন ধরে অভিযান পরিচালনা করে আসছি। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে আমরা এই টেলিভিশন দুইটির কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হই। এই টেলিশিভন চ্যানেলগুলো এই কার্যালয় থেকে বিভিন্ন ধরনে বাংলা ছায়াছবি, নাটক, বিজ্ঞাপন ও অশ্লীল ছবি সম্প্রচার করে থাকে। দেশের প্রায় ৩৪টি জেলায় এদের সম্প্রচার চলছে। এদের সঙ্গে বেশ কয়েকটি ক্যাবল অপারেটর জড়িত রয়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি।’

আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক বলেন, ‘বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে এরা সহজ-সরল মানুষদের চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণা করে আসছিল। এছাড়াও ক্যাবল অপারেটরদের সঙ্গে তাদের আর্থিক লেনদের বিষয়ও রয়েছে। এই টেলিভিশন বাজারে শেয়ার ছেড়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘রাশেদ স্বপন আগে একটি বেসরকারি টেলিভিশনে ক্রু পদে কাজ করতেন। আর ইব্রাহীম এর আগে পাইরেসির অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়ে জেল খেটেছেন। শামীম আহমেদ এখানে সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। আর রাশেদ স্বপন এখানে মার্কেটিং ম্যানেজার হিসেবে আছেন।’

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘এখানে বিভিন্ন ধরনের অনুষ্ঠান বানিয়ে তা সিঙ্গাপুরে পাঠানো হতো। পরে সিঙ্গাপুর থেকে তা সম্প্রচারের ব্যবস্থা করত।’ এদের মালিক কে এমন প্রশ্নের জবাবে মুফতি মুনির বলেন, ‘কৌশলগত কারণে তাদের নাম-পরিচয় প্রকাশ করছি না।’

সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের কোম্পানি কমান্ডার আবুল কালাম আজাদ,  র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার সিনিয়র সহকারী পরিচালক মিজানুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now