শীর্ষ শিরোনাম
Home » শীর্ষ সংবাদ » প্রতিহিংসার রাজনীতি শুরু করেছে বিএনপি, এখন ফল ভোগ করছে: এরশাদ

প্রতিহিংসার রাজনীতি শুরু করেছে বিএনপি, এখন ফল ভোগ করছে: এরশাদ

সিলেট রিপোর্ট:  জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ দূত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, আমার আমলে মিলনসহ ২ জন মারা গিযেছিলো আর এখন প্রতিদিন মানুষ মারা যাচ্ছে।কত মায়ের কোল খালি হচ্ছে এসবের হিসেব নেই। এরশাদ বলেন, এখন খবরের কাগজ পড়িনা কারন,প্রতিদিনই লাশের মিছিল র্দীর্ঘ হচ্ছে। এসব দেখে সংবাদ পত্র পড়তে মনচায়না। এবারে ঈদে ১৬৫ জন বাড়ীতে যেতে গিয়ে লাশ হলো। ভুয়া লাইসেন্স নিযে গাড়ী চালিয়ে মানুষ মারছে যারা তাদের বিচার হচ্চেনা, তাই লাশের মিছিল রম্বা হচ্ছে। ১কোটির উপরে লাইসেন্স দেয়া হয়েছে,যোগ্যতার বাছবিচার ছাড়াই। র্দুঘটনার কারন চিহ্নিত করা হচ্চেনা, দোষিদের শাস্তি হচ্ছেনা।
শনিবার বিকেলে নগরীর রেজিস্ট্রারি মাঠে  জাতীয় পার্টি আয়োজিত জন সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এরশাদ আওয়ামী লীগ ও বিএনপির কঠোর সমালোচনা করে বলেন, দেশে এখন প্রতিহিংসার রাজনীতি চলছে। আর এই প্রতিহিংসার রাজনিতি শুরু করেছে বিএনপি। আমার সাথে জুলুম করা হয়েছিলো আমি তখন সবর করেছি, তারা এর ফল ভোগ করছে। এরশাদ বলেন, আমি সিলেটকে ভাল বাসী। এখানে বাবা শাজজালাল শাহপরানের মাজার রয়েছে। এখানে ওসমানিশিায়িত। আমি ওসমানী সাহেবকে পিতার মতো সম্মান করতাম। যে কোন শুভকাজ আমি এখান থেকেই শুরু করি। আগামী নির্বাচনের কাজ এখন থেকেই বাবার দোয়া নিযে শুরু করেছি।
শনিবার বেলা সোয়া দুইটার দিকে জাতীয় পাটির ভাইস চেয়ারম্যান এডভোকেট গিয়াস উদ্দিনের সভাপতিত্বে এ জনসভা শুরু হয়। বিকেল সাড়ে ৩টার পর নগরীর রেজিস্ট্রারি মাঠে আয়োজিত এ জনসভার মঞ্চে আসন নেন তিনি। দলের কেন্দ্রীয় কো-চেয়ারম্যান ও সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদসহ কেন্দ্র থেকে আসা নেতৃবৃন্দরাও তার সাথে জনসভাস্থলে আসেন।
জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করবেন হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ। এরই মধ্যে বক্তব্য দিচ্ছেন কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতারা।

রওশন এরশাদ বলেন, ‘স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে দেশের যত উন্নয়ন হয়েছে সব উন্নয়নই এরশাদ সরকারের আমলে হয়েছিলো। ওই সময়ে ক্ষমতার বিকেন্দ্রীকরণের মাধ্যমে মানুষের উন্নয়ন করা হয়েছে। উপজেলা পরিষদ গঠন করা হয়েছে। দেশের অভ্যন্তরে গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা নির্মাণ করা হয়েছে।

কিন্তু পরবর্তী সময়ে আসা সরকারগুলো এরশাদের করে যাওয়া উন্নয়ন বন্ধ করে দেয়। এতে প্রমাণ হয়; জাতীয় পার্টি ছাড়া অন্য কোন সরকার দেশের উন্নয়ন চায় না। তাই দেশের জণগণের উন্নয়নের স্বার্থে নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে আগামীতে জাতীয় পার্টিকে ক্ষমতায় নিয়ে যেতে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।
এর আগে দুপুর পৌনে ১টায় বেসরকারী বিমান সংস্থা ইউএস বাংলার একটি বিমানে করে সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরে এসে পৌঁছান তিনি।
সিলেটে পৌঁছেই নেতৃবৃন্দকে সাথে নিয়ে হযরত শাহজালাল (রহ:) ও শাহপরাণ (রহ.) মাজার জিয়ারত করেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। সেখানে ফাতেহা পাঠ ও বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন তারা।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now