শীর্ষ শিরোনাম
Home » দুর্ঘটনা » চালকের ফোনালাপে সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কে প্রাণ গেলো ৩ জনের

চালকের ফোনালাপে সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কে প্রাণ গেলো ৩ জনের

8308নিজস্ব প্রতিবেদক : যাত্রীবাহী মিনিবাসের গাছের সাথে ধাক্কা লেগে উল্টে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও এ দুর্ঘটনায় প্রায় ৩০ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে গুরুতর আহত ২০ জনকে কৈতক ও সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার (৫ অক্টোবর) বেলা আড়াইটায় সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কের জাতুয়া এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সিলেট থেকে দিরাইগামী একটি যাত্রীবাহী মিনিবাসের চালক গাড়ি ছাড়ার পর থেকেই বার বার মোবাইলে ফোনালাপ করে আসছিল। এতে যাত্রীরা বাঁধা দেয়ার পর কিছু সময় বন্ধ থাকলেও কিছু দূর গিয়ে আবারো ফোনালাপ শুরু হয়। অবশেষে গোবিন্দগঞ্জ আসার পর পুনরায় ফোনালাপ শুরু হয়।

অবশেষে জাতুয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কাছে ফোনালাপ চলা অবস্থায় মিনিবাস (মৌলভীবাজার জ ১১-০২৫৮) সড়কের পাশের একটি গাছের সাথে ধাক্কা খেয়ে উল্টে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই ৩ জন নিহত ও ৩০ জন আহত হয়েছে। নিহতরা হচ্ছে, শাল্লা উপজেলার মুক্তারপুর আশ্রমের জগদানন্দ দাসের মেয়ে রাধা রাণী পাল (৪৮), দিরাই হাশিমপুর গ্রামের শ্যামল কান্ত দাসের মেয়ে মৌসুমী রাণী (২৫) ও গোলাপগঞ্জের ঢাকা দক্ষিণ দত্তরাইল গ্রামের মৃত আব্দুল্লাহর পুত্র শামীম আহমদ (৩৫)। মৌসুমী রানীর ৫ মাসের বাচ্চা বেঁচে যায়।
ঘটনার খবর পেয়ে সুনামগঞ্জের এএসপি (সার্কেল) কানন কুমার দেবনাথ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। জয়কলস হাইওয়ে ইনচার্জ একেএম শফিকুল আলমের নেতৃত্বে একদল হাইওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধারসহ আহতদের হাসপাতালে প্রেরণ করেন। গাড়িটি পুলিশের জিম্মায় রয়েছে।
এ ব্যাপারে হাইয়ে ইনচার্জ সফিকুল আলম জানান, অসাবধানতাবশত এ দুর্ঘটনাটি ঘটেছে।
ছাতক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মো. আশরাফুল ইসলাম দুর্ঘটনার খবর নিশ্চিত করে বলেন, “সিলেট থেকে দিরাইগামী বাস ছাতকের জাতুয়া এলাকায় পৌঁছে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটা গাছের সাথে ধাক্কা লেগে উল্টে খাদে পড়ে যায় এতে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।”

——–সিলেটটুডে

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now