শীর্ষ শিরোনাম
Home » মসজিদ-মাদরাসার খবর » বেফাক একটি ঐতিহ্যবাহী বোর্ড, বিশৃংখলা সৃষ্টিকারীদের প্রতিহত করা হবে: পাচঁশত ছাত্র নেতার বিবৃতি

বেফাক একটি ঐতিহ্যবাহী বোর্ড, বিশৃংখলা সৃষ্টিকারীদের প্রতিহত করা হবে: পাচঁশত ছাত্র নেতার বিবৃতি

bifak-logoসিলেট রিপোর্ট: বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ (বেফাক) এর অর্ন্তভুক্ত দেশের পাচঁশতাধিক মাদরাসার ছাত্র সংসদের নেতৃবৃন্দ এক যুক্তবিবৃতিতে বলেছেন, বেফাক উপমহাদেশর একটি ঐতিহ্যবাহী কওমী মাদরাসাসমুহের সমন্বিত একটি বোর্ড। এই বোর্ডের সাথে দেশের র্শীষ হাজার হাজার মাদরাসা অর্ন্তভুক্ত। দেশের মধ্যে এই বোর্ডটি মাত্র জাতীয় বোর্ড বলে সর্বজন স্বীকৃত। নেতৃবৃন্দ বলেন, আমরা অত্যন্ত উদ্বেগের সাথে লক্ষ করছি যে, সম্প্রতি কওমী সনদের সঈকৃতির বিষয়টিকে কেন্দ্রকরে কেউ কেউ বেফাককে বিভক্তির দিকে নিয়ে যাচ্ছেন। দেশের সর্বজনশ্রদ্ধেয় বুর্যুগ এবং উম্মুল মদিারিস দারুল উলুম হাটহাজারীর মহাপরিচালক আল্লামা শাহ আহমদ শফীর প্রতি দেশের সর্বশ্রেণির আলেম উলামা,ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের নিকট যে সম্মান রয়েছে তা বিনষ্টের জন্য একটি চিহ্নিত মহল প্রকাশ্যে লাফালাফি করছে। মাওলানা রেজওয়ান আহমদ স্বাক্ষরিত ঐ বিবৃতিতে বলা হয়, আমরা কওমী সনদের স্বীকৃতি চাই। কিন্তু স্বীকৃতির নামে কোন ক্রমেইদিারুল উলুম দেওবন্দের আর্দশ পরিপন্থী বা নিজেদের স্বকীয়তা বিনষ্ট হয় এমন স্বীকৃতির পক্ষে আমরা নয়। রাষ্ট্রিয় স্বীকৃতি পাওয়া আমাদের ন্যায্য অধিকার, আর এই অধিকার আদায় করতে গিয়ে কারো ‘দাস’ হুকুমের গোলাম হওয়া যাবেনা। আল্লামা শাহ আহমদ শফী সহ দেশ বরেন্য উলামায়ে কেরামের মতামত নিয়েই এগিয়ে যেতে হবে। কারো কান কথায় বিশেষ গোষ্টির এজেন্ডা বাস্তবায়নে কাজ করলে পরবর্তীতে এর মাষুল দিতে হবে।
কওমী মাদরাসা ছাত্র সঙদের নেতারা বলেন, সম্প্রতি কওমী স্বীকৃতি বাস্তবায়ন পরিষদ নামে একটি ব্যানারে মাওলানা ইয়াহইয়া মাহমুদ বেফাক পুর্নগঠনের হুমকি দিয়েছেন-আমরা এই হুমকির তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। কারন উনার কথাবার্তায় এটা পরিস্কার যে উনারা বিশেষ শ্রেণির এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে,উলামায়ে কেরামের মধ্যে অনৈক্য সৃষ্টির জন্যই অযথা উস্কানী মুলক কথাবার্তা বলছেন। বেফাক বিভক্ত করতে দেয়া হবেনা। যারাই বেফাকে বিভক্তিিবিশৃংখলা সৃষ্টি করতে চাইবে তাদেরকে কঠোর হস্তে প্রতিহত করতে এদেশের লাখ লাখ কওমী সন্তানেরা। বিবৃতিতে স্বাক্তার কারীদের মধ্যে রয়েছেন মাওলানা রেজাউল কারীম,মাওলানা ইদ্রিস আলী, মাওলানা আহমাদুল হক, মাওলানা সালিম আহমদ,ইবাদুর রহমান, আজিজুর রহমান, শাহিদ আহমদ প্রমুখ।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now