শীর্ষ শিরোনাম
Home » শীর্ষ সংবাদ » এবার শাবিপ্রবিতে প্রেমিক কর্তৃক প্রেমিকাকে মারধর, উঠিয়ে নেয়ার চেষ্টা !

এবার শাবিপ্রবিতে প্রেমিক কর্তৃক প্রেমিকাকে মারধর, উঠিয়ে নেয়ার চেষ্টা !

METADATA-START

METADATA-START

সিলেট রিপোর্ট: শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে এবার প্রকাশ্য দিবালোকে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীকে অপহরণের চেষ্টা এবং মারধর করেছে কথিত প্রেমিক। শুক্রবার (০৭ অক্টোবর) দুপুর ১টায় ক্যাম্পাসে ছাত্রী হলের রাস্তায় এক সিনিয়র শিক্ষকের সামনে নৃবিজ্ঞান বিভাগের ওই ছাত্রীকে মারধোর এবং জোর করে উঠিয়ে নেয়ার চেষ্টাকালে তাকে আটক করা হয়। অপহরণের চেষ্টাকারী কাওছার আহমেদ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী এবং তার গ্রামের বাড়ি হবিগঞ্জ। এসময় কাওছারের সাথে ছিল তার ছোট বোন। সে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আইইআরের ৩য় বর্ষের ছাত্রী বলে জানা গেছে।

গণিত বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ড. সাজেদুল করিম সাংবাদিকদের জানান- শুক্রবার দুপুর ১টায় জুম্মার নামাজের আগমুহূর্তে কাওছার ১ম ছাত্রী হলের সামনে থেকে নৃবিজ্ঞান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের এক ছাত্রীকে রিক্শায় জোর করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তিনি লক্ষ্য করেন, ওই ছাত্রীকে আটককৃত কাওছার রিক্শায় উঠিয়ে উপর্যুপরি চড়-থাপ্পড় এবং মাথায় আঘাত করে বলে জানান তিনি। অধ্যাপক সাজেদুল করিম এসময় তাকে থামতে বললেও ছেলেটি ওই ছাত্রীকে তার স্ত্রী দাবি করে রিক্শায় পালিয়ে যেতে চায়। সে এটা তাদের পারিবারিক ব্যাপার বলে উল্লেখ করে।
এসময় ওই ছাত্রী চিৎকার করে কাদতে থাকে। তিনি রিক্শাকে থামার জন্যে বললেও কাওছার দ্রুত ওই ছাত্রীকে নিয়ে চলে যেতে থাকে। একপর্যায়ে সাজেদুল করিম তার রিক্শা নিয়ে ওই ছাত্রীর রিকশার গতিরোধ করেন।
অবস্থা বেগতিক দেখে ককাওছার পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে উপস্থিত জনতা ধাওয়া করে কাওছারকে ধরে আনলে অধ্যাপক সাজেদুল করিম অন্যান্যদের সহায়তায় কাওছারকে উপাচার্য ভবনে আটকে রাখেন। জুম্মার পর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক সামসুল আলম, সাধারণ সম্পাদক মহিবুল আলম, ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর অধ্যাপক রাশেদ তালুকদার, শিক্ষক ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ ইকবাল, সাবেক সিন্ডিকেট সদস্য ফারুক উদ্দীন, প্রভোস্ট ড. এস.এম হাসান জাকিরুল ইসলামসহ সিনিয়র শিক্ষকরা আসেন।
পরে জালালাবাদ থানার ওসি আখতার হোসেন ঘটনাস্থলে আসলে কাওছারকে জালালাবাদ থানায় হস্তান্তরের সিদ্ধান্ত হয়।
কিন্তু তখনই বাঁধে বিপত্তি। দুপুর আড়াইটায় উপাচার্য ভবন থেকে কাওছারকে বের করার সময় নৃবিজ্ঞান বিভাগের কতিপয় শিক্ষার্থী তার উপর হামলা করে বসে। এসময় শিক্ষকরা বাধা দিতে গেলে হামলায় অধ্যাপক সামসুল আলম, সাবেক সিন্ডিকেট সদস্য ফারুক উদ্দীন, জালালাবাদ থানার ওসি আখতার হোসেনসহ বেশ কয়েকজন শিক্ষক লাঞ্ছিত ও আহত হোন। এসময় ওসি আখতার হোসেন বিক্ষুব্ধ ছাত্রদের হামলায় আহত হোন। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্ততি চলছে বলে জানিয়েছেন ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর।
সিলেট রিপোর্ট/সু-উপু-৭-১০-২০১৬

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now