শীর্ষ শিরোনাম
Home » মসজিদ-মাদরাসার খবর » মাওলানা মুহিউদ্দীন খান ছিলেন উম্মাহর একজন দরদী অভিভাবক : উবায়দুর রহমান খান নদভী

মাওলানা মুহিউদ্দীন খান ছিলেন উম্মাহর একজন দরদী অভিভাবক : উবায়দুর রহমান খান নদভী

imagesসিলেট রিপোর্ট: বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ, দৈনিক ইনকিলাবের সহকারী সম্পাদক মাওলানা ড. উবায়দুর রহমান খাঁন নদভী বলেছেন, মাসিক মদীনা সম্পাদক উপমহাদেশে বাংলা ভাষায় ইসলামের ব্যাপক অবদান রেখেছেন। পবিত্র কোরআনের তাফসীর ছাড়াও শতাধিক গ্রন্থ রচনা করে মাওলানা মুহিউদ্দীন খান ইতিহাসের একজন শ্রেষ্ঠ মণীষীর স্থান দখল করে আছেন।
ইসলাম প্রচারে তাঁর অবদানের কথা চিরকাল জাতি শ্রদ্ধা ভরে স্মরণ করবে।  তিনি বলেন, নবীগনের কাজ ছিলো-উম্মতের ফিকির করা।  প্রকৃত নায়বে নবীদের কাজ ও তাই হওয়া উচিত। মানুষের কল্যানেই মাওলানা মুহিউদ্দীন খান আজীবন কাজ করেগেছেন। একজন সত্যিকারের নায়বে নবীর ভুমিকা পালন করেগেছেন। তার মধ্যে সবসময় দেশ ও জাতির ফিকির থাকতো।
গতকাল (৭ অক্টোবর) বিকেলে সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার  বরায়া বাটুলগঞ্জ আরাবিয়া ইসলামিয়া মাদরাসায় ’ফখরে মিল্লাত মাওলানা মুহিউদ্দীন খান স্মরনে এক আলোচনা সখা ও দোয়া মাহফিলে এসব কথা বলেন। মাওলানা শায়খ আব্দুল হকের সভাপতিত্বে এবং মাওলানা রুহুল আমীন নগরীর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় আলোচনা পেশ করেন, মাসিক মদীনার বর্তমান সম্পাদক আলহাজ্ব মাওলানা আহমদ বদরুদ্দীন খাঁন, বরায়া বাটুলগঞ্জ আরাবিয়া ইসলামিয়া মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা লুৎফুর রহমান, ছাত্র জমিয়তের কেন্দ্রীয় সভাপতি মুফতি নাছির উদ্দীন খান, মাওলানা সাইফুর রহমান, মাওলানা মনজুর আহমদ, মাওলানা মিসবাহুজ্জামান, মুফতি আবুল কালাম, হাফিজ মাওলানা শরীফ আহমদ শাহান, মাওলানা কায়সান মাহমুদ আকবরী, মাওলানা মুশতাক আহমদ, মাওলানা  মাহদী হাসান প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, মাওলানা মুহিউদ্দীন খান বহুমুখি প্রতিভার অধিকারী বিশাল ব্যক্তিত্ব ছিলেন।  রাজনৈতিক ময়দানে তিনি জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সাথে সম্পৃক্ত থাকলেও তিনি সকল দলের নেতা কর্মীদের নিকট একজন অভিভাবক হিসেবে পরিচিত ছিলেন। ভারতীয় নদী আগ্রাসনের প্রতিবাদে ২০০৫ সালে তার তেৃত্বে টিপাইমুখবাধঁ অভিমুখে ঐতিহাসিক লংমার্চ করে দেশ প্রেমের উজ্জবল দৃষ্টান্ত স্থপান করেন।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now