শীর্ষ শিরোনাম
Home » সংগঠন » জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম সিলেট জেলা শাখার কাউন্সিল সম্পন্ন: অবৈধ কর্মকান্ডকে বৈধকরার জন্যই সরকার বিচার বিভাগকে হাতের মুঠোয় নিতে চায়—কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম সিলেট জেলা শাখার কাউন্সিল সম্পন্ন: অবৈধ কর্মকান্ডকে বৈধকরার জন্যই সরকার বিচার বিভাগকে হাতের মুঠোয় নিতে চায়—কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ

সিলেট রিপোর্ট: জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ, সিলেট জেলা শাখার সদস্য সম্মেলন ও কাউন্সিল অধিবেশনে বক্তারা বরেছেন, সরকারের সকল অবৈধ কর্মকান্ডকে বৈধকরার জন্যই তারা বিচার বিভাগকে হাতের মুঠোয় নিতে চায়।  বক্তারা শাপলা চত্বরে ইসলামী জনতার উপর যুলুম নির্যাতনের কথা উলে¬খ করে গোটা দেশে সকল ইসলামী শক্তিকে জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের ছায়াতলে সমবেত হওয়ার জন্য আহবান জানান। সরকারের সম্প্রচার নীতিমালার বিরুধীতাকরে জমিয়ত নেতৃবৃন্দ বলেন, এই সরকার জনগনের সরকার নয়, তাই অধৈক সরকারের বিরেুদ্ধে গণ আন্দোলন গড়ে তোলতে ২০ দলীয় জোট নয় প্রয়োজনের সর্বদলীয় জোটের সাথে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম মাঠে ময়দানে ঝাপিয়ে পড়বে।
শনিবার নগরীর দরগাহ গেইটস্থ শহীদ সুলেমান হলে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। জেলা জমিয়তের সভাপতি মাওলানা শায়খ জিয়া উদ্দীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সিনিয়র সহসভাপতি ও ঢাকা মহানগর হেফাজতে ইসলামের আহবায়ক শায়খুল হাদীস আল¬ামা নূর হোসাইন কাসেমী। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতাকরেন, জমিয়তের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি মাওলানা আব্দুর রব ইউসুফি, মাওলানা জুনায়েদ আল হাবিব, সাংগঠনিক সম্পাদক শায়খুল হাদীস মাওলানা উবায়দুল¬াহ ফারুক, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা বাহাউদ্দীন যাকারিয়া, সহকারী মহাসচিব মাওলানা তাফাজ্জুল হক আজিজ প্রমুখ।
সম্মেলন শেষে মাওলানা শায়খ জিয়া উদ্দীন ও মাওলানা আতাউর রহমান যথাক্রমে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদ পদে  জেলা জমিয়তের পুঃনরায় নির্বাচিত হন।

স্বাগত বক্তব্য ও সাংগঠনিক রিপোর্ট পেশ করেন সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আতাউর রাহমান কোম্পানীগঞ্জী। উপস্থিত ছিলেন, জমিয়ত নেতা মাওলানা মোশাহিদ দয়ামিরী, মাওলানা আবদুছ ছালামা রশিদী, শায়েখ  আবদুল মতিন, আলহাজ্ব শামসুদ্দীন বানিগামী, মাওলানা খয়রুল হোসেন, হাফিজ আবদুর রাহমান সিদ্দীকি, মাওলানা আবদুুল মালিক চৌধুরী, মাওলানা শামসুল ইসলাম মিরেরচরী, মাওলানা আবদুল মুছাব্বীর কোম্পানীগঞ্জী, মাওলানা জাওয়াদুর রাহমান, মাওলানা আবদুল আজিজ, মাওলানা ফিরুজ আহমদ, মাওলানা শায়েখ আবদুস শহীদ, মাওলানা খলিলুর রাহমান, মাওলানা হাফিজ মাওলানা সৈয়দ শামিম আহমদ,  মাওলানা আসরারুল হক, মাওলানা আবদুল গফ্ফার ছয়ঘরী, মাওলানা মুশতাক আহমদ চৌধুরী, বিয়ানীবাজার উপজেলা ভাইস চেয়াম্যান মুফতি শিব্বীর আহমদ, জামালগঞ্জ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা রশীদ আহমদ, মাওলানা জয়নাল আবদীন, মাওলানা নূর আহমদ কাসিমী, আলহাজ্ব জোবায়ের আল মাহমুদ, মাওলানা বিলাল আহমদ ইমরান, হাফিজ মাওলানা আবদুল খালিক কাসিমী, ,মুফতি এবাদুর রাহমান, মাওলানা মাহফুজ আহমদ কাসিমী, মাওলানা ওলিউর রাহমান, মাওলানা ফরিদুদ্দীন কয়েস, মাওলানা মুহাম্মদ আলী, মাওলানা নুরুল হক, মাওলানা শিব্বির আহমদ বিশ্বনাথী, মাওলানা কাজী আমীন উদ্দীন, হাফিজ মাওলানা আবদুছ ছালাম, মাওলানা বদরুল ইসলাম, মাওলানা সাইফুল ইসলাম, মাওলানা হিফজুর রাহমান, হাফিজ মাওলানা শরীফ আহমদ শাহান, হাফিজ আলী আহমদ, মাওলানা নাজিমুদ্দীন, মাওলানা রিয়াজুদ্দীন,  মাওলানা মুস্তফা আহমদ, মাওলানা কারী মুখতার, মাওলানা সাইফুর রাহমান, সৈয়দ ছালিম কাসিমী,  মাওলানা হাসান আহমদ, মাওলানা লুৎফুর রহমান, বিলাল আহমদ চৌধূরী প্রমুখ।
সম্মেলনে দৈনিক ইনকিলাবের সম্পাদক সহ সকল সাংবাদিকদের উপর থেকে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও মিডিয়া কর্মীদের অযথা হয়রানী বন্ধের আহবান জানানো হয়।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সিলেট মহানগর জমিয়তের সভাপতি মাওলানা মনসুরুল হাসান রায়পুরী, সুনামগঞ্জ জেলা সভাপতি মাওলানা আব্দুল বছির, মাওলানা খলিলুর রহমান,মুফুুতি মুজিবুর রহমান, মাওলানা বিলাল আহমদ ইমরান, ভাইস চেয়ারম্যান মুফতি শিব্বির আহমদ, হাফিজ রশীদ আহমদ, মাওলানা জয়নুল আবেদীন, মাওলানা আব্দদুল খালিক, মুফতি ইবাদুর রহমান, মাওলানা মুখতার আহমদ, মাওলানা আব্দুস সালাম, মাওলানা মোহাম্মদ আলী, মাওলানা ওলিউর রহমান , মাওলানা আব্দুল মুছাব্বির, মাওলানা জহির উদ্দীন. আলহাজ্ব শামসুদ্দীন, মুফতি খন্দকার হারুনুর রশীদ।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন, মাওলানা আব্দুল মালিক কাসেমী, মাওলানা নজরুল ইসলাম, মাওলানা সাইফুর রহমান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আল্লামা নুর হোসাইন কাসেমী বলেন, দেশ আজ কঠিন সময় অতিক্রম করছে। জাতি আজ দিশে হারা রাষ্ট্রিয় সন্তাসের তান্ডবে মানুষ আজ সত্য কথা বলতে পারছেনা। তাই জাতির এই ক্রান্তিকালে জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের পতাকাতলে সকল দেশ ও দ্বীনদরদী জনতাকে ঐক্যবদ্ধ হতেহবে।  তিনি বলেন, সরকার সম্প্রচার নীতি মালার নামে মানুষের কথাবলার স্বাধীনতা কেড়ে নিতে চায়। আইনের শাসনের পরিবর্তে দলীয় শাসনের মাধ্যমে সরকার বাকশাল কায়েমের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। তাই ঈমানী জযবায় উজ্জীবীত হয়ে ইসলাম ও দেশর বিরুধী অপশক্তির মোকাবেলায় ময়দানে ঝাপিয়ে পড়তে হবে।

মাওলানা আব্দুর রব ইউসুফি বলেন, জীবনের র্দীঘ ৩৫ টি বছর ধরে আন্দোলন করে আসছি , আজ শেষ সময়ে জমিয়তের পতাকাতলে সমবেত হয়েছি । আল্লাহর দ্বীন প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে আমি যেন শহীদ হতেপারি সেই আকাংখা নিয়ে হেফাজতে ইসলামে আন্দোলনে ছিলাম রাজপথে আছি এবং জীবনের শেষ সময় পর্যর্ন্ত যেন থাকতে পারি।
মাওলানা জুনায়েদ আল হাবিব বলেন, আগামী নির্বাচনে সিলেটের ১৯ আসনে জমিয়তের নিজস্ব প্রার্থী চাই। এজন্য যোগ্যতা নেতৃত্ব ও রাজপথের জনগনের সাথে থাকতে হবে।  তিনি বলেন, সরকারের সমালোচনা করা যাবেনা এই মর্মে আমাদেরকে সর্তক করা হয়েছে। যদি সরকারের সমালোচনা করা যেতো তাহলে আমি মাননীয় অর্থমন্ত্রীর ৪ শ কোটি টাকার বিষয়ে কথা বলতোম, যদি সরকারের সমালোচনা করা যেতো তাহলে আমি শাপলা চত্বরের নির্মমম নির্যাতনের কথা বলতাম, আমি বলতাম সরকারের ইসলাম বিদ্বেষীর কর্মকান্ডের ফিরিস্তি…

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now