শীর্ষ শিরোনাম
Home » মিডিয়া » মৌলভীবাজারে অনলাইন সাংবাদিক কল্যাণ ইউনিয়নের মানববন্ধন

মৌলভীবাজারে অনলাইন সাংবাদিক কল্যাণ ইউনিয়নের মানববন্ধন

manobbondhon

এহসান বিন মুজাহির, মৌলভীবাজর: সাংবাদিক সাইফুল ইসলামের উপর মিথ্যে মামলা ও পুলিশী নির্যাতনের প্রতিবাদে এবং মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার পূর্বক তার নি:শর্ত মুক্তির দাবীতে বাংলাদেশ অনলাইন সাংবাদিক কল্যাণ ইউনিয়ন (বসকু) মৌলভীবাজার জেলা শাখার উদ্যোগে, মৌলভীবাজার প্রসক্লাবের সামনে রোববার সকাল ১২.৩০টায় এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয় ।
সাংবাদিক এমদাদুল হকের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশ অনলাইন সাংবাদিক কল্যাণ ইউনিয়নের (বসকু), মৌলভীবাজার জেলা শাখার সভাপতি সাংবাদিক শ. ই. সরকার জবলু, সাধারণ সম্পাদক মশাহিদ আহমদ, সাংবাদিক সুধাংশু শেখর হালদার, সাংবাদিক মতিউর রহমান, সাংবাদিক ও কলামিস্ট এহসাান বিন মুজাহির, সাংবাদিক আব্দুল হাই ইদ্রিসী, সাংবাদিক এ এস কাকন, সাংবাদিক সাইফুল ইসলামের পিতা জুবের আহমদ, স্ত্রী রুমি বেগম, নিউজ অর্গান ডটকমের সহযোগী সম্পাদক শাহ মাসুম বিল্লাহ ফারুকী প্রমুখ। বক্তারা বক্তব্যে বলেন, শ্রীমঙ্গল থানার ওসি আব্দুল জলিলের অনিয়ম-দুর্নীতির সংবাদ পরিবেশনের কারণে নাশকতা পরিকল্পনার মিথ্যা মামলা দায়ের পূর্বক দৈনিক জনতা, ঢাকা ট্রিবিউন ও পাতাকুঁড়ির দেশ পত্রিকার শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি সাংবাদিক সাইফুল ইসলামকে গ্রেফতারও পুলিশ হেফাজতে অমানুষিক নির্যাতনের চালায় শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ।
বক্তারা অনতি বিলম্বে নির্দোষ ও সাহসী সাংবাদিক সাইফুল ইসলামের উপর ষড়যন্ত্রপ্র্কূ মিথ্যে মামলা প্রত্যাহার করে নি:শর্ত মুৃক্তির দাবি জানান। অন্যথায় আগামী দিনে সাংবাদিকদের এই প্রতিবাদ কর্মসূচী আরো বেগবান করার ঘোষনা দেন বক্তারা। একই সাথে শ্রীমঙ্গল থানার,স্বেচ্ছাচারী, দূর্নীতিবাজ, সাংবাদিক নির্যাতনকারী ওসি আব্দুল জলিলের অপসারষেরও দাবি জানান। তার সাথে সাথে সাংবাদিক সাইফুলের সুচিকিৎসার দাবী জানানো হয়। মানববন্ধনে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন।
উল্লেখ্য গত ২৩ এপ্রিল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০ ঘটিকার সময় শ্রীমঙ্গল শহরের র বের হয়ে পূর্বাশা এলাকায় যাওয়ার সময় শ্রীমঙ্গল শহরের ক্যাথলিক মিশন রোড একটি সিএনজি অটোরিক্সা যেগে সাদা পোষাকে কয়েকজন পুলিশ তাকে আটক কওে থানায় নিয়ে যায়। আটক করেএক রাত শ্রীমঙ্গল থানা হাজতে তাকে রেখে ওসি আব্দুল জলিলের নেতৃত্বে চোখ বেঁধে অমানবিক নির্যাতন চালানো হয়। পরে জেলার কর্মরত সাংবাদিকরা ঘটনাটি জানাজানি হলে কোন উপায় না দেখে শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা পরদিন তাকে কোট হাজতে পাঠায়। বর্তমানে সাইফুল মৌলভীবাজার জেলা কারাগারে গুরত্বর আহত অবস্থায় রয়েছেন

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now

Leave a Reply

Your email address will not be published.