শীর্ষ শিরোনাম
Home » বিভিন্ন জেলা-উপজেলা » মুরতাদ লতিফ সিদ্দিকীর শাস্তির দাবীতে মানব বন্ধনে গুলি চালিয়েছে পুলিশ; একজনের অবস্থা গুরুতর

মুরতাদ লতিফ সিদ্দিকীর শাস্তির দাবীতে মানব বন্ধনে গুলি চালিয়েছে পুলিশ; একজনের অবস্থা গুরুতর

ডেস্ক রিপোর্ট: মহানবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ও পবিত্র হজ্ব এবং তাবলীগ জামায়াত সম্পর্কে কটূক্তি করার প্রতিবাদে সাবেক ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর শাস্তির দাবীতে  আজ বুধবার বিকেলে যশোর প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত বিএনপির মানববন্ধনে গুলি ছুড়েছে পুলিশ। এ সময় যশোর সদর উপজেলার উপশহর ইউনিয়নের তিন নম্বর ওয়ার্ড যুবদলের সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেনের (২৩) বুকে পিস্তল ঠেকিয়ে পুলিশ গুলি করেছে। তবে পুলিশ এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

ঘটনাস্থল থেকে যশোর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাবেরুল হকসহ দলটির ১০ নেতা-কর্মীকে পুলিশ আটক করেছে।

যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, যুবদল নেতা কামালের বুকের বাঁ-পাশে একটি গুলি লেগেছে। তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক। পুলিশ সদস্যের ডান হাত ও অপরজনের মাথা, ঘাড়, হাতসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে রাবার বুলেট বিদ্ধ হয়েছে। তিনজনের দেহে অস্ত্রোপচার চলছে।

জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শামসুল হুদা সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে পুলিশ বর্বর হামলা চালিয়েছে। কোনো ধরনের উসকানি ছাড়াই পুলিশ বিএনপির মিছিলে গুলি চালিয়েছে। শামসুল হুদা দাবি করেন, পুলিশ যুবদল নেতা কামালকে ধরে নিয়ে বুকে পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করেছে।

এ অভিযোগ অস্বীকার করে যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) কে এম আরিফুল হক সাংবাদিকদের বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছালে প্রথমে বিএনপির মিছিল থেকে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়া হয়। আত্মরক্ষার্থে পুলিশ শটগানের কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে। কাউকে ধরে নিয়ে গুলি করা হয়নি বলেও তিনি জানান।

এদিকে সন্ধ্যায় বিএনপির নগর কমিটির সভাপতি ও পৌরসভার মেয়র মারুফুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, পুলিশি হামলার তাঁদের ৩০ জন নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন। গ্রেপ্তারের ভয়ে তাঁরা বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এ ছাড়া জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাবেরুল হক, সহসম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, জেলা ওলামা দলের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেনসহ ১০ জনকে পুলিশ আটক করেছে বলে তিনি জানান।

এ ঘটনার পর থেকে শহরে উত্তেজনা বিরাজ করছে। নিরাপত্তা জোরদার করতে শহরে পুলিশ টহল বাড়ানো হয়েছে বলে জানা গেছে।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now