শীর্ষ শিরোনাম
Home » রাজনীতি » হবিগঞ্জে জমিয়তের বিশাল কনফারেন্সে জাতীয় নেতৃবৃন্দের ঘোষণা: লতিফ সিদ্দিকী যে দিন দেশে ফিরবে সেদিন থেকে লাগাতার হরতাল

হবিগঞ্জে জমিয়তের বিশাল কনফারেন্সে জাতীয় নেতৃবৃন্দের ঘোষণা: লতিফ সিদ্দিকী যে দিন দেশে ফিরবে সেদিন থেকে লাগাতার হরতাল

সিলেট রিপোর্ট: জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ হবিগঞ্জ জেলা শাখার উদ্যোগে আয়োজিত  ‘জেলা জমিয়ত কনফারেন্স এ নেতৃবৃন্দ বলেছেন, বর্তমান ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগ সরকারের আমলে দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব এবং ধর্মীয় তাহযিব তামাদ্দুন হুমকির সম্মুখিন। সংবিধান থেকে আল্লাহর উপর আস্থা ও বিশ্বাস তুলে দেওয়ার পর থেকে একরপর এক ইসলামের বিরুদ্ধে আঘাত হানা হচ্ছে। জাতীয় শিক্ষা নীতি, নারী নীতিতে ইসলাম বহিভুত অনেক আইন জাতির গারে চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে। সম্প্রতি সরকারের একজন মন্ত্রী প্রকাশ্যে মহানবী (সা), পবিত্র হজ্ব ও তাবলীগ জামাতের বিরুদ্ধে কটুক্তিকরে ধর্ম প্রাণ মুসলমানদের কলিজায় আগুণ জালিয়েদিয়েছে। এই আগুন সহজে নেভানো যাবেনা। তারা বলেন, লতিফ সিদ্দিকীকে অবিলম্বে গ্রেফতার করে ফাঁসি দিতে হবে। সে যদি বাংলাদেশে প্রবেশ করে সেদিন থেকেই গোটা বাংলাদেশে আন্দোলনের দাবানল জ্বলে উঠবে। দেশে প্রবেশের সাথে সাথে গ্রেফতার করানা হলে লাগাতার হরতাল চলবে। নেতারা কঠোর হুশিয়ারী উচ্ছারণ করে বলেন, মুরতাদ লতিফ সিদ্দিকীকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তি দেওয়া না হলে যে কোন অনাকাংখিত গঠনার জন্য শেখ হাসিনার সরকার দায়ী থাকবেন। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা র্পযন্ত হবিগঞ্জ জেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত কনফারেনসে সভাপতিত্ব করছেন, দেশের প্রবীন শায়খুল হাদীস ও জেলা জমিয়তের সভাপতি আল্লামা তাফাজ্জুল হক হবিগঞ্জি।
আলহাজ্ব ক্বারী ফরিদ উল্লাহ ও  মাওলানা আব্দুল মালিক চেীধুরীর যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় নির্বাহীসভাপতি মাওলানা মোস্তফা আজাদ,সিনিয়র সহসভাপতি আল্লামা নুর হোসাইন কাসেমী,সহসভাপতি মাওলানা আব্দুর রব ইউসুফি,  মাওলানা জুনায়েদ আল হাবিব, মহাসচিব সাবেক ধর্মপ্রতিমন্ত্রী মুফতি ওয়াক্কাস, যুগ্মমহাসচিব মাওলানা বাহাউদ্দীন যাকারিয়া, সাবেক এমপি মাওলানা শাহীনূর পাশা চৌধুরী, কেন্দ্রীয় আর্ন্তজাতিক বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা শুয়াইব আহমদ, হবিগঞ্জ পৌর মেয়র জি কে গৌছ, জমিয়তের কেন্দ্রীয় সহকারী মহাসচিব মাওলানা গোলাম মুহিউদ্দীন ইকরাম, কেন্দ্রীয়সহকারী সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি রেজাউল করিম, ছাত্র জমিয়ত ব্ংালাদেশ এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক, শায়খুল হাদীস আব্দুস শহিদ গলমুকাপনী, সিলেট মহানগর জমিয়তের সহসভাপতি মাওলানা সৈয়দ শামিম আহমদ, জেলা জমিয়তের সহকারী সেক্রেটারী মাওলানা জয়নুল আবেদীন, মাওলানা আয়ুব বিন সিদ্দিক, বানিয়াচং আলিয়া মাদ্রাসার প্রভাষক মাওলানা মুবাশ্বির আহমদ, মাওলানা  আব্দুল জলিল ইউসুফি, মুফতি মুশতাক ফুরকানী, মাওলানা রুহুল আমীন নগরী, যুব জমিয়তের কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা মাসরুর আহমদ,জেলা ছাত্র জমিয়তের সভাপতি মাওলানা তাফহিমুল হক, মাওলানা নুরুল ইসলাম, মাওলানা  শাহজাহান, মাওলানা আশিকুর রহমান, মাওলানা এমদাদুল হক চুনারুথাট, মাওলানা ইকবাল হোসাইন, মুফতি আহমদ আলী,  মাওলানা আলী আহমদ, মাওলানা শামসুদ্দিন বাহুবল, মাওলানা মুতাহের হোসেন চুনারুঘাট, মাওলানা নাজমুল ইসলাম প্রমুখ। সংগীত পরিবেশন করেন, হাফিজ আব্দুল করিম দিলদার,জাকারিয়া আহমদ, আব্দুল্লাহ আল মামুন।
যে যা বল্লেন, আল্লামা নুর হোসাইন কাসেমী বলেন, দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব আমাদের ঈমান আকিদা আজ হুমখীর সম্মুখিন । তাই জাতিকে আজ জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। তিনি বলেন, সরকারের ইসলামে বিপক্ষের শক্তি। শাপলা চত্বরের শহীদদের রক্ত বৃথা যেতে পারেনা  এদেশেই ইসলামী হুকুমত কায়েম হবেই ইনশা আল্লাহ।
মুফতি ওয়াক্কাস বলেন, জাতির দুদিনে হক্কানী উলামায়ে কেরামকেই  এগিয়ে আসতে হবে। তিনি জমিয়তকে আকাবির উলামায়ে কেরাম ও অকোতুভয় সৈনিকের দল উল্লেখ করে বলেন, সারাদেশের আলেম সমাজকে ঐক্যবদ্ধহয়ে রাজপথে নেমে আসতে হবে। তবেই এদশ থেকে নাস্তিক মুরতাদ খতম হবে।
জুনায়েদ আল হাবীব বলেন, এই অবৈধ সরকারের অবৈধ মন্ত্রী লতিফ সিদ্দিকী ইসলামের অন্যতম স্থম্ভ পবিত্র হজ্বের বিরুদ্ধে বক্তব্য রেখে মুরতাদে পরিনত হয়েছে। লতিফ সিদ্দিকী আর তসলিমা নাসরিম একই সুত্রে গাথা। তিনি বলেন, এই মুরতাদ যে দিন বাংলার যমিনে প্রবেশ করবে সে দিন থেকেই তাঁর স্থান হতে হবে কারাগার আর সেখান থেকেই ফাসিঁ দিতে হবে। দেশে প্রবেশের সাথে সাথেই গোটা বাংলাদেশে আন্দোলনের দাবানল জ্বলে উঠবে। সেদিন থেকেই লাগাতার হরতাল চলবে।
বিকেল চারটায় সম্মেলন শেষে জিকিরের সাথে পদযাত্রাসহকারে জেলা পরিষদ হল থেকে পদ যাত্রাসহকারে কয়েক হাজার জমিয়ত কমী নুরুল হেরা পযর্ন্তযান। সেখানে মোনাজাতের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তিঘটে।
সভাপতি ভাষণে আল্লামা তাফাজ্জুল হক বলেন, জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের নেতৃত্বেই এদেশে ইসলামী হুকুমত কায়েম হবে। আল্লাহর যমিনে আল্লাহর নেযাম কায়েমের সংগ্রামে সর্বস্থরের জনতাকে জমিয়তের ছায়াতলে সমবেত হওয়ার আহবান জানান। লতিফ সিদ্দিকীর ফাসিঁসহ তিনি অবিলম্বে তত্বাবধায়ক সরকারের অধিনে সুষ্ট নিবাৃচনের ও দাবী জানান।  তিনি বলেন, আমরা কোন শ্লোগান দিবনা, বিশৃংখলা সৃষ্টিকরবোনা। কেউ যদি আমাদের পদ যাত্রায় বাধাদেয় তাহলে আমরা মুখে লা ইলাহা ইল্লাল্লাহর জিকিরের সাথে রাস্তায় শুয়ে পড়বো।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now

Leave a Reply

Your email address will not be published.