শীর্ষ শিরোনাম
Home » সুনামগঞ্জ » সুনামগঞ্জে সুরমা নদীর পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত

সুনামগঞ্জে সুরমা নদীর পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত

ggসুনামগঞ্জ প্রতিনিধি : গত  কয়েকদিনের টানা অবিরাম বৃষ্টিপাত ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সুনামগঞ্জ শহরের নবীনগর,চাদনীঘাট , তেঘরিয়া,সাহেববা ড়ি ঘাট ও সুরমা ইউনিয়নের হালুয়ারগাও,বেলা বর হাটি,সৈয়দপুর,ভা তেরটেক,রহমতপুরস হ বিভিন্ন গ্রামের ১০ হাজার মানুষ পানিবন্ধী হয়ে পড়েছে। এতে রোপা আমনের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এদিকে জেলার সদর,তাহিরপুর,বি শ্বম্ভরপুর,দোয়া র বাজার ও ছাতক উপজেলার নি ¤œাঞ্চলের কাচাঘরবাড়িতে বন্যার পানি ঢুকে ২ শতাধিক পরিবার বন্যা কবলিত হয়ে পড়েছে। এতে পুরো জেলায় ৩ হাজার ৬ শত হেক্টর রোপা আমন বীজতলা ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে এবং প্রায় ৫০ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় সুনামগঞ্জের ঘোলঘরস্থ সুরমা নদীর পানি বিপদ সীমার ৭৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। গত ২৪ ঘন্টায় ১৯৫ মিঃ মিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। এদিকে তাহিরপুর- সুনামগ ঞ্জ সড়ক যোগাযোগ বিছিন্ন থাকায় চরম র্দূভোগে পড়েছেন কয়েক হাজার মানুষ। তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট,উত্তর বড়দল,বালিজুরী ও উত্তরশ্রীপুর এই ৪টি ইউনিয়নের ৫ শতাধিক রোপা আমন ও হালিচাড়া পানিতে তলিয়ে গেছে। অপরদিকে যাদুকাটা নদীতে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় ক্রাশার মিল বন্ধ থাকায় মিলে ও নদীতে কর্মরত পাথর উত্তোলনকারী ১০ হাজার বারকি শ্রমিক মানবেতর জীবনযাপন করছেন। এদিকে দোয়ারাবাজার উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের খাসিয়ামারা নদীর রাবারড্যাম ক্ষতিগ্রস্থ বেড়িবাধ দিয়ে বন্যার পানি প্রবেশ করায় ইউনিয়নের মহব্বতপুর, বক্তারপুর, গ্জোাউড়া. খাগুড়া, জিয়াপুর, আলীপুর,বৈঠাখাই ও গিরিশেনগর,নরসিং পুর ইউনিয়নের শ্রীপুর ,দৌলতপুর, বিরেন্দ্রনগর, রগারগাও, শ্যামারগাও, জোয়াইরগাও,মুকির গাও সহ ৩০টি গ্রামের ৩০ হাজার মানুষ পানি বন্দি হয়ে পড়েছেন। এতে রোপা আসনের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। তবে এখনো জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে র্দূগতদের জন্য কোন পর্যাপ্ত ত্রানসামগ্রী না দেয়ায় চরম র্দূভোগে রয়েছেন বর্ণ্যাত মানুষজন। এ ব্যাপারে পানি উন্নয়ন বোর্ডে নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ আফসর উদ্দিন জানান,টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে জেলার নদনদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় নি ¤œাঞ্চল প্লাবিত হচ্ছে।

Share Button
Hello

এই ভিডিও প্লে করুন | video play now